‘গণবিজ্ঞপ্তি’ প্রকাশে এনটিআরসিএতে স্মারকলিপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৫ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশের দাবি জানিয়েছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা। রোববার ‘৩য় গণবিজ্ঞপ্তি প্রত্যাশী শিক্ষক ফোরামের’ প্রতিনিধিরা বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষে (এনটিআরসিএ) উপস্থিত হয়ে চেয়ারম্যানের কাছে ষষ্ঠ বারের মতো স্মারকলিপি দেন।

সংগঠনের নেতারা জানান, এনটিআরসিএ’র ১-১৫তম নিবন্ধিত বেকার শিক্ষকদের প্রতিনিধির পক্ষ থেকে দ্রুত গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশে ষষ্ঠ বারের মতো স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। সারাদেশের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শূন্য আসন ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করার কথা থাকলেও তা বিলম্ব করা হচ্ছে। নিবন্ধিত চাকরিপ্রত্যাশীদের মানবেতর অবস্থা তুলে ধরে এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যানকে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে।

তারা বলেন, এনটিআরসিতে গেলে প্রথমে কেউ দেখা করতে না চাইলে নিবন্ধনধারী প্রার্থীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে গেটের সামনে হইচই শুরু করলে একপর্যায়ে চেয়ারম্যান গেটের সামনে এসে আমাদের অভিযোগ শুনে বলেন, গণবিজ্ঞপ্তির সবকিছুই প্রস্তুত কিন্তু রায়ের পূর্ণাঙ্গ পর্যবেক্ষণ কপি তাদের হাতে এলেই তারা দ্রুত গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবেন।

তারা আরও জানান, নিবন্ধনধারীরা দীর্ঘ ৯ মাস ধরে এনটিআরসিএকে বিভিন্নভাবে বোঝানোর চেষ্টা করছে। কিন্তু কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করেই এনটিআরসিএ গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশে বিলম্ব করছে। বেকারত্বের ভয়াল থাবা, অন্যদিকে দুশ্চিন্তার কবলে এসব বেকার নিবন্ধিত শিক্ষকরা এখন মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ‘৩য় গণবিজ্ঞপ্তি প্রত্যাশী শিক্ষক ফোরামের’ মুখপাত্র এ আর সুমন, সভাপতি শান্ত, সহ-সভাপতি রাজ, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুল্লাহ রাজু, মো. রাসেল, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল, সোহরাবসহ অন্য সদস্য ও সাধারণ নিবন্ধনধারীরা।

এমএইচএম/এনএফ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]