স্বাধীনতা দিবসে সাহসী তৌকীর আহমেদ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১৩ পিএম, ২৪ মার্চ ২০১৮

জনপ্রিয় অভিনেতা ও নির্মাতা তৌকীর আহমেদ সম্প্রতি অভিনয় করেছেন স্বাধীনতা দিবসের বিশেষ নাটকে। এর নাম ‘সাহস’। ফেদারম্যান মিডিয়া প্রযোজিত ও ওয়াহিদ পলাশ পরিচালিত এই নাটকটির কাহিনী, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন গুঞ্জন রহমান।

রাজশাহীর বীর মুক্তিযোদ্ধা বরজাহানের মুখে শোনা সত্য ঘটনা অবলম্বনে রচিত ও নির্মিত হয়েছে ‘সাহস’ নাটকটি। আসছে ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা দিবসে বেসরকারি টিভি চ্যানেল ‘মাছরাঙা’-তে রাত ৯ টায় প্রচারিত হবে এটি।

নাটকটির গল্পে দেখা যাবে, ১৯৭১ সালে জাহিদ (তৌকীর আহমেদ) যুদ্ধে যেতে পারেনি। সে তখন রাজশাহী মেডিকেল কলেজের ইন্টার্নির ছাত্র। তার সহপাঠিদের অনেকেই সীমান্ত পেরিয়ে পশ্চিমবঙ্গে চলে যায় যুদ্ধের ট্রেনিং নিতে। জাহিদ থেকে যায়। একদিন সে হোস্টেল থেকে বাইরে আসে।

সেখানে দোকানদার মকবুল (নরেশ ভূঁইয়া)-কে পায়। তার সাথে জাহিদের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা হতে থাকে। কোনদিন সিগারেট না খেলেও এই সময় জাহিদ সিগারেট চায় মকবুলের কাছে এবং সিগারেট খাওয়া শুরু করে। জনশূন্য ক্যাম্পাসে এক রাতে ক্যান্টিন বয় শাহাব আসে। আর কাউকে না পেয়ে জাহিদকে মিলিটারি ক্যাম্পে নিয়ে যেতে চায়।

মেইন হোস্টেলের সামনে এসে দাঁড়ায় আর্মি জিপ। কিছু বুঝে ওঠার আগেই জাহিদকে তুলে নেয়া হয় জিপে। আর বলা হয় জাহিদকে তাদের দরকার। তাদের বাহিনীর যে ডাক্তার ছিলেন তিনি ফিরে গেছেন। রিপ্লেসমেন্ট এখনও এসে পৌঁছায়নি। আপদকালীন সময়ে জাহিদকে তাই পালন করতে হবে আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব।

হঠাৎ কী থেকে কী হয়ে যায়, এক অতলস্পর্শী সাহসের বর্ম যেন চেপে বসে জাহিদের বুকে। সে নিচু গলায়, অথচ দৃঢ় ও স্পষ্ট স্বরে পাক বাহিনীর অফিসারকে ফিরিয়ে দেয়। এরপর জাহিদের উপর শুরু হয় নির্যাতন। শেষ পর্যন্ত কী বাঁচতে পারবেন? সেই উত্তর মিলবে টিভির পর্দায়।

নাটকটিতে তৌকীর আহমেদ, নরেশ ভূঁইয়া, শাহাদাৎ হোসেন ছাড়া আরো অভিনয় করেছেন শশাঙ্ক সাহা, চারু সাইফুল, গুঞ্জন রহমান সহ আরো অনেকে।

এলএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]