‘আমার গরুর গাড়িতে’ গানটি বুলবুলকে কালজয়ী করেছে : ইলিয়াস কাঞ্চন

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১০ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

ভক্ত-অনুরাগীদের শোকের সাগরে ভাসিয়ে চলে গেলেন কিংবদন্তি সংগীত পুরুষ আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল। তার প্রয়াণে সংস্কৃতি অঙ্গনে বিরাজ করছে থমথমে অবস্থা।

মৃত্যুর খবর পেয়ে কেউ কেউ ছুটে গিয়েছেন তার বাসায়। কেউ নিজ গৃহে বসেই করছেন স্মৃতিচারণ, নিজে নিজে আনমনে। অনেকে লিখছেন ফেসবুকে।

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের মৃত্যুর শোক ছুঁয়ে গেছে আশি-নব্বই দশকের সুপারস্টার ইলিয়াস কাঞ্চনকে। জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, ‘এই চলে যাওয়া নিয়ে কোনো কথাই আসলে ভাবতে পারছি না। বুলবুল আমার বন্ধু, আমি বুলবুলের বন্ধু। আমরা সমবয়সী ছিলাম। অনেক ভালো সময় কেটেছে আমাদের।’

স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘একটি দুটি নয়। অনেক জনপ্রিয় গান ও করেছে যেগুলোতে আমি নায়ক ছিলাম। তার মধ্যে আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুলের লেখা, সুর ও সংগীতে ‘আঁখি মিলন’ ছবির ‘আমার গরুর গাড়িতে বউ সাজিয়ে’ গানটি ম্যাসিভ সুপারহিট। সুচরিতা আর আমি জুটি ছিলাম এই গানে। শিল্পী ছিলেন এন্ড্রু কিশোর ও সামিনা চৌধুরী।

গানটি প্রচুর রিমেক হয়েছে পরবর্তীতে দেশে-বিদেশে। ওপার বাংলাতেও খুব হিট এই গানটি। আজও শিল্পীরা মঞ্চে উঠলে বা বিয়ে বাড়িতে এই গান গেয়ে থাকেন। অনেকেই গানটি রিমেক করে তারকাও হয়েছে। আমি মনে করি এই গানটি বুলবুলকে কালজয়ী করেছে, সিনেমাটিকেও কালজয়ী করেছে। আমার ক্যারিয়ারে অনবদ্য একটি সংযোজন গানটি।’

শেষ জীবনে বুলবুলের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল কি-না জানতে চাইলে ইলিয়াস কাঞ্চন বলেন, ‘বুলবুলের সঙ্গে যোগাযোগ অনিয়মিত ছিল। আমি তো সিনেমায় নেই অনেকদিন। তাই ওর সঙ্গে কাজ করা হতো না আগের মতো। বুলবুলও নিজেকে গুটিয়ে নিয়েছিল। জীবনের শেষদিকে অনেক কষ্ট করেছে সে। একাকীত্বে কেটেছে তার দিনগুলো। কোথাও আসতো না, দেখা হতো না।

বুলবুল সর্বশেষ আমার জন্য গান করেছিল কয়েক বছর আগে। নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের জন্য একটি গান চাইলাম। ও করে দিল। এটি বাংলা ও ইংরেজি দুটো ভার্সনে তৈরি করা হয়েছে। ইংরেজি ভার্সনে পুরুষ কণ্ঠটি দিয়েছে আমার ছেলে জয়। বুলবুলই ওকে দিয়ে গানটি গাইয়ে নেয়।

যখন শুনলাম ও চলে গেল একেবারে নির্বাক হয়ে গেলাম। অভিমানী ছিল। অভিমান নিয়েই নীরবে নিভৃতে চলে গেল। বুলবুলের মৃত্যুর খবর পেয়ে আমার ছেলেও হতবাক হয়ে গেছে। ওকে অনেক আদর করতো। জীবন আসলে এই বিদায়ের নিয়তি মেনেই সুন্দর।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি বন্ধু বুলবুলের জন্য দোয়া করি। ওকে যেন মহান আল্লাহ বেহেস্ত দান করেন। সবাই ওর জন্য দোয়া করবেন। আমার জন্যও দোয়া করবেন।’

এলএ/এমকেএইচ/এসজি

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :