বেসরকারি হাসপাতালগুলোকে রক্তচোষা বললেন অভিনেতা

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৬ পিএম, ১১ আগস্ট ২০২০

করোনার মধ্যে বারবার পাওয়া গেছে অমানবিক অনেক খবর। বিশেষ করে হাসপাতালগুলো নিয়ে অনেক করুণ চিত্র ফুটে উঠেছে নানা রকম খবরে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও দেখা গেছে অনেক লেখালেখি।

কেউ টাকার অভাবে ‘ডিপোজিট মানি’ দিতে না পারায় হাসপাতালের বেড পাচ্ছেন না, তো আবার কোনো করোনা রোগীর হাসাপাতালের খরচ দেখে চক্ষু চড়কগাছ হচ্ছে! কারোর মৃত্যুর পর বিল মেটাতে না পারায় মরদেহ রিলিজ দেয়া হচ্ছে না।

এদেশের পাশাপাশি ভারতের হাসপাতালগুলোতেও এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে। করোনার এই দুঃসময়ে যখন একে অপরের প্রতি ভরসা-বিশ্বাসটুকু রাখার দরকার, প্রয়োজন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার তখনই কিনা অতিরিক্ত বিল ফেঁদে টাকার খেলায় মেতেছে বেসরকারি হাসপাতালগুলো?

এই বিল-বাড়ন্তের দৌরাত্ম্য নিয়েই এবার মুখ খুললেন কলকাতার অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষ। কড়া ভাষায় সমালোচনা করে হাসপাতালগুলোকে ‘রক্তচোষা’ বলে কটাক্ষ করলেন তিনি।

করোনা চিকিৎসার জন্য কলকাতায় বেসরকারি হাসপাতালগুলো নাকি আকাশ ছোঁয়া বিল তৈরি করছে। সেটি কারোর অজানা নয়। ওই বিল মেটাতে গিয়ে প্রায় নাজেহাল হতে হচ্ছে সাধারণ মানুষদের। উপরন্তু রোগী ‘রেফার’ করার চক্রে পড়ে হয়রানির শিকারও হতে হচ্ছে! দিন কয়েক আগেই সরকারি হাসপাতালের রেফার কাণ্ডের জন্য প্রাণ গিয়েছে দুই রোগীর।

উপরন্তু দিনের পর দিন করোনা চিকিৎসার জন্য মাত্রাতিরিক্ত বিলের বোঝা চাপিয়ে দিচ্ছে বেসরকারি হাসপাতালগুলো, এধরনের বিভিন্ন ঘটনা ওপার বাংলা থেকেই প্রায় শোনা যাচ্ছে। এসব থেকে বাঁচতে সাধারণ মানুষদের পক্ষে প্রতিবাদে সরব হলেন রুদ্রনীল ঘোষ।

কোনো রাখঢাক না করে স্পষ্ট তিনি বললেন, ‘হয়তো একদিন কিছু মানুষ, ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে দলমত জাতধর্ম ভুলে কিছু রক্তচোষা বেসরকারি হাসপাতাল ভাঙবে। মালিকরা নিজের হাসপাতালে ভর্তিরও সময় পাবেন না! কাঠের বদলে তার লুঠের টাকা দিয়েই তাকে দাহ করা হবে ধাপার মাঠে! ঘিয়ের বদলে তার শরীরে ছড়ানো হবে থুতুর আতর। গঙ্গার বদলে তার নাভি ভাসানো হবে দুর্গন্ধের ড্রেনে…।

ঠিক সেই মুহূর্তে, স্বজন হারানো লুণ্ঠিত বিপর্যস্ত গরীব ও মধ্যবিত্তেরা হাওয়ায় ছুঁড়ে দেবেন উলুধ্বনির ভ্যাকসিন। তাদের চোখের আগুনে লজ্জা পাবে ভলক্যানোর লাভা! মহাকাল লিখবেন বাকি ইতিহাস।’

এই কঠিন পরিস্থিতিতে মধ্যবিত্ত কিংবা নিম্ন মধ্যবিত্তদরে নাভিশ্বাস ওঠার কথা আগেও শোনা গিয়েছে রুদ্রনীলের গলায়। কেন বারবার টাকা-পয়সার কাছে ‘মানবিকতাবোধ’ প্রশ্ন হয়ে দাঁড়াচ্ছে? সমাজকে সেই প্রশ্নের মুখেই আবার দাঁড় করালেন অভিনেতা।

এলএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]