সখিনার প্রেমে অমর হয়ে থাকবেন ফকির আলমগীর

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:২৫ এএম, ২৪ জুলাই ২০২১

চলে গেলেন অবশেষে। করোনার কাছে হার মেনে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছেন কিংবদন্তি গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর।

শুক্রবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে ইউনাইটেড হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে দেশের সংগীতাঙ্গনে। অনেকে ফেসবুকে নানা বার্তায় শোক জানাচ্ছেন। সেসব শোক বার্তায় মিশে আছে ভালোবাসা, শ্রদ্ধা।

ফকির আলমগীরের জন্ম ফরিদপুর জেলার ভাঙা থানার কালামৃধা গ্রামে ১৯৫০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি। কৈশোর থেকেই ছিলেন প্রতিবাদী স্বভাবের। এই স্বভাবই তাকে গণমানুষের শিল্পী বানিয়েছে। আমৃত্যু তিনি বঞ্চিত মানুষের পক্ষে কণ্ঠ সোচ্চার রেখেছিলেন।

'মায়ের এক ধার দুধের দাম', 'জন হেনরি'র মতো গান দিয়ে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন তিনি। এছাড়াও বহু গান তাকে শ্রোতাপ্রিয় করেছে। তবে ফকির আলমগীর অমর হয়ে থাকবেন 'ও সখীনা গেছস কি না ভুইলা আমারে' গান দিয়ে। প্রিয়তমাকে গ্রামে রেখে ভাগ্যের চাকা ঘুরাতে শহরে যাওয়া এক রিকশাওয়ালার হয়ে গাওয়া এই গান কালের স্রোতে জায়গা করে নিয়েছে।

ফকির আলমগীর গানে গানে আজীবন অন্যায়-অনিয়মের বিরুদ্ধে কথা বলেছেন। গানের বাইরেও তিনি ছিলেন বিপ্লবী। ১৯৬৯ সালে তিনি ক্রান্তি শিল্পী গোষ্ঠী ও গণশিল্পী গোষ্ঠীর সদস্য হিসেবে গণ অভ্যুত্থানে যোগ দেন। ১৯৭১ সালে যোগ দেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রে।

১৯৭৬ সালে ফকির আলমগীর গড়ে তোলেন লোকপ্রিয় ঋষিজ শিল্পী গোষ্ঠী।

সংগীতে অসামান্য অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে একুশে পদক পান ফকির আলমগীর।

এলএ/এসআর

 

 

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]