কাজী হায়াতের জয় বাংলায় নতুন এক বাপ্পী, মিতুর স্বপ্ন পূরণ

বিনোদন প্রতিবেদক
বিনোদন প্রতিবেদক বিনোদন প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০৯ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

‘জয় বাংলা’র মতো এতোটা আবেগী ও জনপ্রিয় শব্দযুগল বোধহয় বাংলাদেশিদের কাছে আর নেই। এ নিয়ে গান আছে, স্লোগান আছে। কিন্তু কোনো সিনেমা ছিল না। এত বছর যে এই নামে সিনেমা হয়নি সেটা ভাবলে সত্যি ভীষণ অবাক লাগে। তবে শেষ পর্যন্ত এ নামে সিনেমা হচ্ছে। আমি তার নায়ক। ভাবতেই অন্যরকম অনুভূতি কাজ করছে।

গতকাল (২৭ সেপ্টেম্বর) এফডিসিতে ‘জয় বাংলা’ সিনেমার শুটিংয়ের ফাঁকে এক আড্ডায় এ কথাগুলোই বললেন নায়ক বাপ্পী চৌধুরী।

তিনি ‘জয় বাংলা’ সিনেমায় অভিনয় করছেন কামাল চরিত্রে। এটি নির্মাণ করছেন বরেণ্য চলচ্চিত্রকার কাজী হায়াৎ। গুণী এই পরিচালকের সঙ্গে বাপ্পীর এটি প্রথম কাজ, যা নিয়ে দারুণ উত্তেজিত নায়ক। সেই সঙ্গে প্রত্যাশাও তার আকাশছোঁয়া। বাপ্পী মনে করেন, এ সিনেমাটি তার ক্যারিয়ারকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে যাবে।

মুনতাসীর মামুনের ‘জয় বাংলা’ উপন্যাস থেকে সিনেমাটি নির্মাণ করছেন কাজী হায়াৎ। এটি নির্মাণ হচ্ছে সরকারি অনুদানে। কয়েকদিন ধরেই সিনেমাটির শুটিং হচ্ছে এফডিসিতে। এখানে নায়ক বাপ্পীর সঙ্গে শুটিং করছেন নাদের চৌধুরী, রেবেকাসহ আরও অনেক শিল্পী। গতকাল সেটে পাওয়া গেলো ছবির নায়িকা দোলা চরিত্রের জাহারা মিতুকেও।

তিনিও বেশ উচ্ছ্বসিত ‘জয় বাংলা’ নিয়ে। একটা নতুন চরিত্র, নতুন রকমের গল্প। সেটাও আবার নিজের পড়া প্রিয় একটি উপন্যাসের চরিত্র। সব মিলিয়ে একটা স্বপ্নের মতো ব্যাপার। যে চরিত্র নিজের মনে ভাসে সে চরিত্রটি পর্দায় ফুটিয়ে তোলে দশটা মানুষের সামনে জীবন্ত করে তোলার চ্যালেঞ্জটা দারুণ বলেই মনে করেন মিতু।

তিনি বলেন, ‘এ ছবিটি আসলে অনেক নতুন অভিজ্ঞতার মুখোমুখি করেছে। প্রথমত নিজের পড়া উপন্যাসের চরিত্রে অভিনয় করছি। তারপর দেশের গুণী নির্মাতা কাজী হায়াৎ স্যারের সঙ্গে কাজ করা। অনেক নার্ভাস ছিলাম প্রথমদিকে। বাট তিনি বাবার মতো স্নেহ দিয়েছেন। অনেক কিছু শেখার সুযোগ হচ্ছে।’

সেই সঙ্গে এই কথাটাও বলতে চাই, নায়ক বাপ্পীকে দেখা হলো, জানা হলো একদমই নতুন করে। যেভাবে তাকে চিনি বা পর্দায় দেখি আমরা ‘জয় বাংলা’ তার থেকে সম্পূর্ণই আলাদা। আমি তো বেশ মজা করি ওর সঙ্গে যে ‘তোমার লাল প্যান্ট ও নানা রঙের পোশাক মিস করছি।’ আমি মজা পাই, ও ক্ষেপে।

আসলে এখানে গল্পটাই সাদাকালো যুগের। চরিত্রগুলোও ওরকম। একদম বাস্তব। মেকআপ ছাড়াই সবাই কাজ করছি। সবার গেটআপে সেই সময়টাকে তুলে ধরা হয়েছে। আশা করছি এটা একটা অনবদ্য কাজ হবে সবার।

নিজের গেটআপ ও লুক নিয়ে বাপ্পীও বেশ তৃপ্ত। তিনি বলেন, “সব অভিনেতাই চায় কিছু চ্যালেঞ্জিং চরিত্র। রোমান্টিক সংলাপ আর মারপিট তো করাই হয়। কিন্তু কামাল চরিত্রের মতো চরিত্রে কাজের সুযোগ হয় না। আমি কৃতজ্ঞ কাজী হায়াৎ স্যারের কাছে তিনি আমাকে বেছে নিয়েছেন কামাল হিসেবে। এটি দুর্দান্ত একটি চরিত্র। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ে। আবার সাংবাদিকতাও করে। একটা সময় মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেয়।

গল্পে অনেক উত্থান পতন আছে। চরিত্রগুলোতে প্রাণ আছে। সবাই মিলে চেষ্টা করছি সেরাটা দেয়ার। নিজেকে কামাল চরিত্রে মানাতে চুল কাটতে হয়েছে। ওজন কমাতে হয়েছে। পোশাকেও দেখুন অনেক পরিবর্তন। অভিনয়ের তো আসলে এখানেই মজা। আশা করা যায় হৃদয়ে দাগ কাটার মতো একটি সিনেমা হবে ‘জয় বাংলা’।”

পরিচালক কাজী হায়াৎ বলেন, তিনি চেষ্টা করছেন উপন্যাসটি যেমন আছে সেভাবেই চিত্রায়ন করতে। সবকিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরই সিনেমাটি মুক্তি দিতে চান তিনি।

এলএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]