ধানুশের বাবা বললেন, ‘বিবাহবিচ্ছেদ নয়, ঝগড়া হয়েছে’

বিনোদন ডেস্ক
বিনোদন ডেস্ক বিনোদন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৩২ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২২

দক্ষিণী সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা ধানুশ ও তার স্ত্রী ঐশ্বরিয়া বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়েছেন। এই সপ্তাহের শুরুতে (১৭জানুয়ারি) নিজ নিজ সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে এই কথা জানান তারা। এই দম্পতি ১৮ বছরের সংসার জীবনের ইতি টেনেছেন।

ডিভোর্সের পর থেকেই নানা জল্পনা উঠছে তাদের ঘিরে। এবার এসব জল্পনার অবসান ঘটিয়েছেন অভিনেতার বাবা কস্তুরি রাজা।

ডেইলিথণ্ডি পত্রিকার সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে কাস্তুরি রাজা বলেছেন, পারিবারিক ঝগড়ার কারণে ধানুশ এবং ঐশ্বরিয়া রজনীকান্ত বিচ্ছেদের মতো সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এটি একটি পারিবারিক ঝগড়া যা সাধারণত সব দম্পতির মধ্যেই হয়। তাই কোনো ধরনের গুজবে কান না দিতে মানা করেছেন তিনি। সব ধরনের গুজব অস্বীকারও করেছেন।

রাজা স্পষ্ট করে বলেছেন, এটি বিবাহবিচ্ছেদ নয়। তিনি বলেন, তারা চেন্নাইতে নয় বরং হায়দ্রাবাদে ছিল। তিনি তাদের পরামর্শ দিয়েছেন বলেও দাবি করেন।

এদিকে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে মেয়ের সংসার টেকাতে রজনীকান্ত তার জামাই ধানুশের সঙ্গে দেখা করে বিবাদ মেটাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ধানুশ শ্বশুরের সঙ্গে সাক্ষাৎ এড়িয়ে গিয়েছেন বারবার। তার কারণ তিনি রজনীকান্তকে অপমান করতে চান না।

ধানুশ ও ঐশ্বরিয়া ২০০৪ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন। বিচ্ছেদের ঘোষণা দিয়ে এক বিবৃতিতে ধানুশ টুইটারে লিখেছেন, বন্ধু, দম্পতি, বাবা-মা এবং একে-অপরের শুভাকাঙ্খী হিসেবে আমাদের ১৮ বছরের পথচলা। এ যাত্রা লম্বা হয়েছে বোঝাপড়া, সামঞ্জস্য এবং মানিয়ে নেওয়ায়। আজ আমরা এমন এক জায়গায় দাঁড়িয়েছি, যেখানে আমাদের পথ আলাদা। ঐশ্বরিয়া এবং আমি দম্পতি হিসেবে আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি...।

টুইটারে একই বার্তা দিয়ে ঐশ্বরিয়াও তার সিদ্ধান্তকে সম্মান করার অনুরোধ জানিয়ে এমন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য ব্যক্তিগত গোপনীয়তা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

এলএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]