‘পাকিস্তানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার দাবি মিথ্যা’


প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ১০ জানুয়ারি ২০১৭
‘পাকিস্তানের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার দাবি মিথ্যা’

পরমাণু অস্ত্রবহণে সক্ষম ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র বাবর-৩য়ের সফল পরীক্ষা চালিয়েছে পাকিস্তান। সোমবার ওই ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষার দাবি করা হয়েছে। খবর এনডিটিভির।

ওই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার মাত্র একদিন পরেই এ নিয়ে বিতর্ক উঠেছে। এই দাবির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। টাইমস নাও চ্যানেলে এক বিশেষজ্ঞ দাবি করেছেন পাকিস্তানের এই দাবি মিথ্যা হতে পারে। তার মতে, যে ভিডিও প্রকাশ করে বাবর ৩য়ের সফল উৎক্ষেপণের দাবি করা হচ্ছে তা সত্যি নয়। এখানে কম্পিউটারে কারসাজি করা হয়েছে।

ভিডিওতে দু’টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করতে দেখা গেছে। একটি ধূসর এবং অপরটি কমলা রংয়ের। ভারতীয় নৌবাহিনীর তরফ থেকে এনডিটিভিকে জানানো হয়েছে, সোমবার পাকিস্তানের উপকূলে কোনো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানো হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার যে ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়েছে তা আগের কোনো ভিডিও।

এর আগে পাক জনসংযোগ বিভাগ দাবি করেছিল, সাবমেরিন থেকে ৪৫০ কিলোমিটার দূরের যে কোনো লক্ষ্যবস্তুতে এই ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানতে পারবে। কিস্তু ভিডিওটির অনেকাংশই কম্পিউটার গ্রাফিক্সে তৈরি।

একই দাবি করেছে পাঠানকোটের ভারতীয় উপগ্রহ চিত্র বিশ্লেষকরা। এ নিয়ে অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল বিনায়ক ভাট বলেছেন, ক্ষেপণাস্ত্রের রং সাদা থেকে কমলা হওয়ার পেছনে কোনো কারণ থাকতে পারে না। তাছাড়া ভিডিওতে যে গতিতে ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছে তা নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে।

টিটিএন/পিআর