রোহিঙ্গাদের জন্য সহায়তার হাত বাড়াল আরব আমিরাত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৮ পিএম, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭

মিয়ানমারের রাখাইনে নিপীড়নের শিকার বাস্তুচ্যুত সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য জরুরি ত্রাণ সহায়তা পাঠিয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। দেশটির প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ বিন রশিদ আল-মাকতুমের নির্দেশে এই ত্রাণ পাঠানো হয়েছে।

দেশটির জাতীয় দৈনিক খালিজ টাইমস এক প্রতিবেদনে বলছে, মিয়ানমারের দুঃখজনক ঘটনায় পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণ পাঠিয়েছে এমিরেটস রেড ক্রিসেন্ট (ইআরসি)।

প্রেসিডেন্টের নির্দেশে এমিরেটস রেড ক্রিসেন্টের (ইআরসি) আরব আমিরাত পশ্চিমাঞ্চলের চেয়ারম্যান ত্রাণ পাঠিয়েছেন। বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রাখাইনের সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের মাঝে জরুরি ত্রাণ সরবরাহ করা হয়েছে।

বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গারা যাতে সাম্প্রতিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারেন সেলক্ষ্যেই ইআরসি এই ত্রাণ বিতরণ করেছে। তবে ঠিক কি পরিমাণ ত্রাণ রোহিঙ্গাদের মাঝে বিতরণ করা হয়েছে সেবিষয়ে পরিষ্কার কোনো তথ্য দেয়নি আরব আমিরাত।

বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া প্রায় তিন লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থীর জন্য শনিবার ১০০ টন খাদ্যসামগ্রী পাঠিয়েছে আজারবাইজান সরকার। এর আগে তুরস্ক, মালয়েশিয়া ও অস্ট্রেলিয়া রোহিঙ্গা মুসলিমদের সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে। তুরস্ক সরকারের পাঠানো এক হাজার টন ত্রাণ ইতোমধ্যে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবিরগুলোতে বিতরণ করা হয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের পুলিশ পোস্ট ও একটি সেনাঘাঁটিতে রোহিঙ্গা বিদ্রোহীদের হামলার পর ব্যাপক রক্তক্ষয়ী অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। সেনাবাহিনীর এই অভিযানে রোহিঙ্গা স্রোতের ঢল নামছে বাংলাদেশের দিকে। সংঘাত শুরুর আগে থেকেই কয়েক লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে বসবাস করছে।

জাতিসংঘ বলছে, গত ১৫ দিনে প্রায় ২ লাখ ৯৪ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশে করেছে; যাদের অধিকাংশই অসুস্থ অথবা আহত। রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা।

এসআইএস/আরআইপি

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]