ট্রাম্প-কিম বৈঠক : সিঙ্গাপুর যাচ্ছে মার্কিন প্রতিনিধি দল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪৮ পিএম, ২৬ মে ২০১৮

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্টের ডোনাল্ড ট্রাম্পের সম্ভাব্য বৈঠকের আগে চলতি সপ্তাহে সিঙ্গাপুরে যাচ্ছেন হোয়াইট হাউসের এক প্রতিনিধি দল। শনিবার হোয়াইট হাউসের এক মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, সিঙ্গাপুরে আগামী ১২ জুনের সম্ভাব্য বৈঠকের আগে হোয়াইট হাউসের প্রতিনিধিদল ওয়াশিংটন ছাড়বেন। এর আগে, বৃহস্পতিবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প উত্তর কোরিয়ার নেতার সঙ্গে আগামী ১২ জুনের অনুষ্ঠেয় বৈঠক বাতিলের ঘোষণা দিয়ে এক চিঠি লেখেন।

তবে এর কিছুক্ষণ পর আবারো সুর নরম করেন মার্কিন এ প্রেসিডেন্ট। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে দেয়া এক বার্তায় ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেন।

এদিকে, দুই কোরিয়ার যুদ্ধবিরতিগ্রাম পানমুনজমের উত্তর দিকে স্থানীয় সময় শনিবার বিকেল ৩টায় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের সঙ্গে আকস্মিক বৈঠক করেছেন উত্তরের প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। দুই ঘণ্টাব্যাপি ওই বৈঠকে ট্রাম্পের সঙ্গে কিমের স্বাক্ষাতের ব্যাপারে আলোচনা হয়।

বৈঠকের ব্যাপারে রোববার সকালের দিকে মুন জায়ে ইন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের কার্যালয় বলছে, ‘উত্তর কোরিয়া-যুক্তরাষ্ট্রের সম্মেলন সফল করার ব্যাপারে দুই নেতা মত-বিনিময় করেছেন।

পলিটিকো ম্যাগাজিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হোয়াইট হাউস ও পররাষ্ট্র দফতরের ৩০ কর্মকর্তার সমন্বয়ে একটি দল চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে সিঙ্গাপুরের উদ্দেশ্যে ওয়াশিংটন ছাড়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

রয়টার্স বলছে, বৈঠকের আলোচ্যসূচি এবং অন্যান্য বিষয়ে উত্তর কোরিয়ার কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনার জন্য এই কর্মকর্তারা সিঙ্গাপুরে যাচ্ছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, অগ্রগামী এই দলে রয়েছেন, হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ জোসেফ হ্যাজিন, মার্কিন জাতীয় উপ-নিরাপত্তা উপদেষ্টা মিরা রিকার্ডেল।

বৃহস্পতিবার কিম জং উনকে লেখা চিঠিতে ট্রাম্প বলেন, আপনার সঙ্গে সেখানে মিলিত হওয়ার জন্য আমি খুবই উন্মুখ ছিলাম। দুঃখজনক হলো, আপনার সাম্প্রতিক বিবৃতিতে প্রদর্শিত ‘জঘন্য ক্ষোভ এবং প্রকাশ্য শত্রুতা’র কারণে আমার মনে হয়েছে, দীর্ঘপরিকল্পিত এই বৈঠক এই মুহূর্তে যথাযথ হবে না।

ট্রাম্পের এমন ঘোষণার কয়েক ঘণ্টা আগেই উত্তর কোরিয়া তাদের পুঙ্গে-রি পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষাকেন্দ্রে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সুড়ঙ্গ ধ্বংস করার কথা জানায়। কেন্দ্রটি পরিদর্শনে যাওয়া বিদেশি সাংবাদিকরাও বড় ধরনের বিস্ফোরণ দেখতে পাওয়ার কথা জানিয়েছেন। ট্রাম্প-কিমের বৈঠককে কেন্দ্র করেই উত্তর কোরিয়া তাদের একমাত্র পারমাণবিক অস্ত্র কেন্দ্র ধ্বংস করার ঘোষণা দিয়েছিল।

চিঠিতে ট্রাম্প বলেন, আপনি আপনাদের পারমাণবিক সক্ষমতার ব্যাপারে কথা বলেছেন। কিন্তু আমাদেরগুলো এত বিশাল এবং শক্তিশালী যে আমি সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করি যেন কখনোই সেগুলোর ব্যবহার না করতে হয়। ট্রাম্প বলেন, সারা বিশ্ব, বিশেষ করে উত্তর কোরিয়া, শান্তি, উন্নতি এবং সমৃদ্ধির একটি বিশাল সুযোগ হাতছাড়া করল। তবে আমি আপনার সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য অপেক্ষা করছি।

এসআইএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :