ফ্লোরেন্সের আঘাতে নিহত ৫, প্রাণঘাতী বন্যার শঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৩৪ পিএম, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ক্যারোলিনার দিকে অগ্রসর হতে থাকা হারিকেন ফ্লোরেন্সের আঘাতে অন্তত পাঁচজনের প্রাণহানি ঘটেছে। শুক্রবার স্থানীয় সময় সকালে নর্থ ক্যারোলিনায় আঘাত হানে প্রাণঘাতী এই হারিকেন। ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে ক্রান্তীয় ঝড়ে রূপ নিলেও ভয়াবহ বন্যার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে দেশটির আবহাওয়া দফতর।

ইউএসএ ট্যুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবারও ফ্লোরেন্সের আগ্রাসনের কমতি দেখা যায়নি। দক্ষিণ ক্যারোলিনায় ঘণ্টায় ১০৫ কিলোমিটার বেগে তীব্র বাতাসের সঙ্গে মুষলধারে বৃষ্টিপাত হচ্ছে। প্রচণ্ড বর্ষণের কারণে প্রাণঘাতী বন্যার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

মার্কিন হারিকেন সেন্টার বলছে, হারিকেন ফ্লোরেন্স ক্রমে শক্তি হারিয়ে ওহিও উপত্যকার দিকে অগ্রসর হতে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। শক্তি হারিয়ে হারিকেন থেকে ক্রমান্বয়ে ক্রান্তীয় ঝড়ে রূপ নিচ্ছে ফ্লোরেন্স।

তবে দেশটির পূর্ব উপকূলে প্রচুর বৃষ্টিপাত ও তীব্র বাতাসের কারণে গাছ-পালা উপড়ে ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ১০৫ কিলোমিটার বেগে তীব্র বাতাসের সঙ্গে ফ্লোরেন্স পূর্ব উপকূলে এখন হালকা হচ্ছে।

এদিকে, এখন পর্যন্ত ফ্লোরেন্সের আঘাতে নর্থ ক্যারোলিনায় পাঁচজনের প্রাণহানি ও অন্তত ৯ লাখ মানুষকে জরুরি আশ্রয় কেন্দ্রে নেয়া হয়েছে। ওই অঞ্চল থেকে ১৭ লাখ মানুষকে অন্যত্র সরে যেতে সতর্কতা জারি করা হয়েছিল।

প্রাণহানি শুধু নর্থ ক্যারোলিনায়

>>শুক্রবার নর্থ ক্যারোলিনার উইলমিংটনের গাছ উপড়ে ঘরের ওপর পড়ায় এক নারী ও তার সন্তানের প্রাণহানি ঘটেছে। ওই নারীর স্বামী গাছ চাপায় আহত হওয়ায় তাকে স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

>>লিনইর কাউন্টিতে ৭০ বছর বয়সী দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। ঝড়ের সময় বিদ্যুৎ চলে যাওয়ায় জেনারেটর চালু করার সময় একজন মারা যান এবং অপরজন বাড়ির বাইরে কুকর কেমন আছে; তা দেখতে ঘর থেকে বের হওয়ার পর মারা গেছেন বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

>> হ্যাম্পস্টিড শহরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা গেছেন এক নারী।

নর্থ ক্যারোলিনার গভর্নর রয় কুপার বলেছেন, আরো বেশ কয়েকটি প্রাণহানির ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। সম্ভবত ঝড়ের কারণেই এ প্রাণহানি ঘটেছে। সামনের দিনগুলোতে আরো বর্ষণ হতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন তিনি। স্থানীয়দের উদ্দেশে কুপার বলেন, যদি আপনাদের এলাকা ছাড়তে বলা হয়; তাহলে দয়া করে সরে যাবেন।

আবহাওয়াবিদ রায়ান ম্যায়ি বলেন, হারিকেন ফ্লোরেন্স ৯ দশমিক ৬ ট্রিলিয়ন গ্যালন বৃষ্টি ঝরাতে পারে। কিছু কিছু এলাকার সড়কের ওপর তিন ফুট পর্যন্ত পানি স্তর উঠে গেছে।

সূত্র : বিবিসি, ইউএসএ ট্যুডে।

এসআইএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :