পাকিস্তানের রাজনীতিতে ফিরলেন নওয়াজ শরিফ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:২৩ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮

পাকিস্তানের রাজনীতিতে ফিরেছেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। জাতীয় নির্বাচনের আগে দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত হয়ে কারাগারে থাকায় দীর্ঘদিন তিনি পাকিস্তানের রাজনীতিতে অনুপস্থিত ছিলেন। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) নেতা পাঞ্জাবে তার বাসভবনে ফিরে আসেন। শুক্রবার তিনি মুরি, রাওয়ালপিন্ডি এবং ইসলামাবাদের পিএমএল-এন নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর স্থানীয় একটি প্রেস ক্লাবে নওয়াজের সদ্য প্রয়াত স্ত্রী কুলসুম নওয়াজের স্মরণে একটি শোক সভায় যোগ দেন। দিনব্যাপী তিনি দলের ঊর্ধ্বতন নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

এছাড়াও নওয়াজ সাবেক প্রধানমন্ত্রী শহীদ খান আব্বাসির সঙ্গে সাক্ষাত করেন। আব্বাসি লাহোরের এক সংসদীয় আসনের উপ-নির্বাচনের প্রচারণায় রয়েছেন। নওয়াজের দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের মহাসচিব এবং সাবেক মন্ত্রী রাজা আশফাক সারোয়ারকে দেখতে হাসপাতালে যান তিনি। সেখানে দলটির এই গুরুত্বপূর্ণ নেতা বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আরো বেশ কয়েকদিন নওয়াজ শরিফের সেখানে থাকার কথা রয়েছে। এ সময় তিনি দলটির গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন।

পিএমএল-এন এর বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহ থেকে জনসভা এবং বিভিন্ন অঞ্চলের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে নওয়াজ দলটিতে তার রাজনৈতিক অংশগ্রহণ শুরু করবেন। এ সময় তিনি উপ-নির্বাচনে অংশ নেওয়া দলটির প্রার্থীদের সঙ্গেও বৈঠক করবেন বলে জানানো হয়।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের জুনে লন্ডন যাওয়ার পর থেকে নওয়াজ শরিফ পাকিস্তানের রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন। এরপর ৬ জুলাই দুর্নীতির মামলায় আদালত তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। এছাড়াও মেয়ে মরিয়ম নওয়াজকে ৭ বছরের এবং মরিয়মের স্বামী সফদরকে এক বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত।

এরপর ১৩ জুলাই নওয়াজ এবং মরিয়ম পাকিস্তানে আসলে বিমানবন্দরেই তাদের গ্রেফতার করে লাহোরের আদিয়ালা কারাগারে প্রেরণ করা হয়। ১১ সেপ্টেম্বর নওয়াজ শরিফের স্ত্রী কুলসুম নওয়াজ ক্যান্সার আক্রান্ত লন্ডনে মারা যান। ওই রাতেই নওয়াজের আবেদেনের প্রেক্ষিতে ১২ ঘণ্টার জন্য প্যারোলে জামিন মঞ্জুর করে আদালত। ১২ সেপ্টেম্বর প্যারোলে মুক্তির মেয়াদ আরো পাঁচদিন বৃদ্ধি করা হয়। এরপর ১৯ সেপ্টেম্বর নওয়াজ শরিফ তার মেয়ে মরিয়ম এবং জামাতা সফদরকে জামিনে মুক্তি দেয় আদালত।

এসএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]