সৌদি যুবরাজকে সরিয়ে দেয়া হচ্ছে?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২১ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০১৮

যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানকে সরিয়ে তার অপেক্ষাকৃত কম উচ্চাকাঙ্ক্ষী ছোট ভাই খালিদ বিন সালমানকে সৌদি আরবের যুবরাজের পদে অভিষিক্ত করার পরিকল্পনা করছে দেশটির সরকার। ফ্রান্সের দৈনিক লা ফিগারো বৃহস্পতিবার প্যারিসের একটি কূটনৈতিক সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে।

ফরাসী এই দৈনিক বলছে, রিয়াদবিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগির গুম হয়ে যাওয়া নিয়ে এরইমধ্যে সৌদি আরবের প্রভাবশালী এলিজেন্স কাউন্সিল গোপনে বৈঠক করেছে। ব্যক্তিগত আক্রোশের বশবর্তী হয়ে এরইমধ্যে যুবরাজ বিন সালমান বহু প্রিন্সের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিয়ে এই কাউন্সিলের বিরাগভাজন হয়েছেন।

খাশোগিকে মোহাম্মাদ বিন সালমানের নির্দেশে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরে হত্যা করা হয়েছে বলে ব্যাপকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

সৌদি এলিজেন্স কাউন্সিল গত বছর দেশটির রাজতন্ত্রের প্রথা ভেঙে বিন সালমানকে নয়া যুবরাজ পদে নিয়োগ দিয়েছিল। ফরাসি পত্রিকাটি বলছে, এই কাউন্সিল এখন ২৮ বছর বয়সী মোহাম্মাদ বিন সালমানের ছোট ভাই খালিদ বিন সালমানকে উপ-যুবরাজের দায়িত্ব দিতে চাচ্ছে। পর্যায়ক্রমে তাকে যুবরাজের পদে অভিষিক্ত করা হবে। খালিদ বর্তমানে আমেরিকায় সৌদি রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করছেন।

একটি সৌদি সূত্র লা ফিগারোকে বলেছে, খালিদকে উপ-যুবরাজের পদে বসানোর অর্থ হবে আগামীতে যুবরাজের পদ হারাবেন মোহাম্মাদ বিন সালমান। এভাবে সৌদি রাজতন্ত্রের ক্ষমতা সালমান পরিবারের কাছেই রেখে দেয়া সম্ভব হবে।

দেশে এবং দেশের বাইরে খালিদ বিন সালমান তার বড় ভাই মোহাম্মাদের চেয়ে অনেক বেশি জনপ্রিয় বলে পত্রিকাটি জানিয়েছে।

এর আগে মার্কিন দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস গত সোমবার খবর দিয়েছিল, খালিদ বিন সালমানকে এরইমধ্যে রিয়াদে উড়িয়ে আনা হয়েছে। তিনি আর রাষ্ট্রদূত হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে যাচ্ছেন না।

এসআইএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :