বন্ধ হচ্ছে প্যারিসের বিখ্যাত নগ্ন রেস্তোরাঁ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১৫ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৯

চালু হওয়ার ১৫ মাসের মধ্যেই অবশেষে বন্ধ হতে চলেছে প্যারিসের প্রথম নগ্ন রেস্তোরাঁ। রেস্তোরাঁটি ২০১৭ সালে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে চালু হলেও যথেষ্ট গ্রাহক না থাকায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ।

২০১৭ সালের নভেম্বরে চালু হওয়ার পর মানুষের মধ্যে বেশ আগ্রহ ছিল রেস্তোরাঁটি নিয়ে। একসঙ্গে বসে খাওয়ার ব্যবস্থা ছাড়াও রেস্তোরাঁটিতে ছিল একান্তে সময় কাটানোর সুযোগ। খাবার থেকে শুরু করে রেস্তোরাঁর সাজসজ্জাসহ সব কিছুতেই বেশ অভিনবত্ব এনেছিলেন মালিকরা। নানা রঙের আলো রেস্তোরাঁটিতে একটা মায়াজাল তৈরি করে রাখতো।

রেস্তোরাঁটির শর্ত ছিল গ্রাহকদের পোশাক ও ফোন বাইরে জমা রেখে ভেতরে প্রবেশ করে নগ্ন হয়ে খাবার খেতে হবে। তাছাড়া বাইরের মানুষদের নজর এড়াতে রেস্তোরাঁটি জুড়ে ছিল বড় বড় পর্দা। কিন্তু রেস্তোরাঁটি প্যারিস জুড়ে আলোড়ন সৃষ্টি করলেও ক্রেতাদের টানতে পারেনি।

কিন্তু যে চিন্তাভাবনা থেকে রেস্তোরাঁটি খোলা হয়েছিল পনেরো মাস কেটে গেলেও সেই পরিমাণ অর্থ উপার্জন করা যায়নি। ফলে লোকসানে চলা রেস্তোরাঁটি আগামী ফেব্রুয়ারি থেকে বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মালিক মাইক ও স্টিফনি সাডা। তাছাড়া অনেকেই রেস্তোরাঁটির বিরুদ্ধে কড়া সমালোচনা করেন বলে জানা যায়।

মালিকপক্ষের ধারনা ছিল নগ্ন সমুদ্র সৈকতের মতো নগ্ন রেস্তোরাঁটিও হয়তো সাদরে গ্রহণ করবেন সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে প্যারিসে ঘুরতে এসে একবার অন্তত তাদের রেস্তোরাঁতে ঢুঁ মারবেন দেশ-বিদেশের পর্যটকরা। কিন্তু তাদের এই ধারনা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। আশানুরূপ সাড়া না পাওেয়ায় অবশেষে মালিক দুজন রেস্তোরাঁটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এসএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :