মোদির হাতে সময় মাত্র ১০০ দিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৫৭ পিএম, ২২ জানুয়ারি ২০১৯

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির হাতে সময় আছে আর মাত্র ১শ দিন। কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধীর দাবি, কেন্দ্রে মোদি সরকারের আয়ু আছে আর মাত্র ১শ দিন। অর্থাৎ আগামী তিন মাসের চেয়ে কিছুটা বেশি সময়ের মধ্যেই ভারতে শেষ হয়ে যাবে মোদির জামানা।

আরও ভালোভাবে বললে আগামী লোকসভা ভোটের পরে আর মোদি সরকারের অস্তিত্ব থাকছে না। বিজেপি নেতারা মোদি সকার নিয়ে যে স্লোগান দিচ্ছে তা আসলে ফাঁকা আওয়াজ ছাড়া আর কিছুই নয়।

গত শনিবার কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে এক মহা সমাবেশের আয়জন করে তৃণমূল কংগ্রেস। ওই রাজনৈতিক সমাবেশে হাজির হয়েছিলেন দেশের অনেক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব। কেন্দ্রের সরকার থেকে নরেন্দ্র মোদিকে উৎখাত করতে সবাই এক বাক্যে রাজি আছেন। তাদের বক্তব্যে এমন কথাই উঠে এসেছে।

ব্রিগেডের মঞ্চে দেশের রাজনীতির জগতের তারকাদের নিয়ে এসে ইতিহাস রচনা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস। গত ১৯ তারিখের ব্রিগেড সমাবেশ ভারতের রাজনীতির ইতিহাসে দীর্ঘদিন স্মরণে থাকবে।

ওই সমাবেশের পরে পাল্টা বক্তব্য দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। ওই দিনই গুজরাটের একটি অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন মোদি। সেখানে তিনি বলেন, সব বিরোধীরা একজোট হয়েছে আমার বিরুদ্ধে। আসলে সবাই বাঁচাও-বাঁচাও করে চিৎকার করছে। একাধিক রাজনৈতিক দলের একজোট হওয়াকে নিজের সাফল্য বলেই মনে করছেন মোদি।

এই বিষয়কেই কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। তার মতে, দেশের লাখ লাখ বেকার যুবক কাঁদছে। অসহায় কৃষক, দলিত ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ এবং ছোট ব্যবসায়ীরা সবাই ক্ষতিগ্রস্ত। এরা সবাই নরেন্দ্র মোদির অত্যাচার এবং অপশাসন থেকে মুক্তি পেতে চাইছে বলে দাবি করেছেন রাহুল। তার দাবি, আর ১শ দিনের মধ্যেই এরা সবাই মুক্তি পাবে। নিজের এই বক্তব্য এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি।

টিটিএন/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :