ইসরাইলি ট্যাঙ্কে ফিলিস্তিনিদের প্রথম ড্রোন হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৩ পিএম, ৩১ মে ২০১৯

ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলন ড্রোনের সাহায্যে ইসরাইলের একটি ট্যাঙ্কসহ দুটি সামরিক যানে হামলা করেছে। সেই হামলার একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ড্রোন থেকে ছোঁড়া ক্ষেপণাস্ত্রটি ইসরাইলি ট্যাঙ্কে আঘাত করছে। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত ওই ভিডিওটিতে জানানো হয়েছে, গাজা সীমান্ত থেকে অস্ত্রটি ছোঁড়া হয়।

ফিলিস্তিনের কোনো সশস্ত্র প্রতিরোধ সংগঠন ড্রোনের মাধ্যমে কখনোই ইসরাইলে হামলা করেনি। ফিলিস্তিনি ড্রোন হামলার এটিই প্রথম ঘটনা। এর আগে এ ধরণের হামলার খবর পাওয়া যায় নি। সম্প্রতি ফিলিস্তিন আর ইসরায়েলের মধ্যে উত্তেজনার সময় এই হামলা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

লেবাননের আল-মাসিরা টেলিভিশন চ্যানেল থেকে ইসলামি জিহাদ আন্দোলনের হামলার ওই ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে বলা হচ্ছে, গাজায় সাম্প্রতিক ইসরাইলি আগ্রাসনের জবাবে ইসলামি জিহাদ এ হামলা চালিয়েছে। তবে কবে হামলাটি করা হয়েছে সে সম্পর্কে কিছু জানায়নি তারা।

ভিডিওটি প্রকাশিত হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে যায়। ড্রোনে থাকা ক্যামেরার মাধ্যমে হামলার ভিডিও ধারণ করা হয়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, অনেক দূর থেকে ইসরায়েলি ট্যাঙ্কটিতে হামলা হলো।

ট্যাঙ্কে আঘাত হানার পর হালকা বিস্ফোরণের শব্দও পাওয়া যায়। আরবি উচ্চারণে সে সময় একটি বাক্য শোনা যায়। যাতে বলা হচ্ছে, ‘তোমাদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা আমাদের কাছে কিছুই না।’ তবে ভিডিওটির বিষয়ে জানতে চাইলে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী কোনো মন্তব্য করেনি।

চলতি মাসের শুরুতে গাজা উপত্যকায় ইসরাইলি হামলার প্রেক্ষিতে রকেট হামলা চালায় ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠনগুলো। হামাস ও ইসলামিক জিহাদ আন্দোলন ইসরাইলে সাত শতাধিক রকেট হামলায় অন্তত চার জন ইসরাইলি নাগরিক নিহত ও দুই শতাধিক আহত হয়।

ফিলিস্তিনের হামলার প্রেক্ষিতে ইসরায়েলও পাল্টা আক্রমণ চালায়। তাদের হামলায় ফিলিস্তিনের বেশ কিছু মানুষ আহত ও কয়েকজন নিহত হয়। তারপর মিসরের মধ্যস্ততায় দুই পক্ষের মধ্যে ফের যুদ্ধবিরতি চুক্তি হয়।

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করুন

এসএ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :