বাবা নির্যাতন করায় মায়ের বিয়ে দিল ছেলে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ পিএম, ১৮ জুন ২০১৯

বাবা প্রতিদিন তার মাকে নানাভাবে নির্যাতন করতেন। বড় হয়েও মাকে প্রতিদিন এভাবে নির্যাতনের শিকার হতে দেখে খারাপ লাগতো। প্রতিবাদ করতেন কিন্তু কোনো লাভ হতো না। শেষে সিদ্ধান্ত নেন মায়ের বিয়ে দেবেন। সম্প্রতি মায়ের বিয়ে দিয়ে ছেলে সেই খবর ফেসবুকের মাধ্যমে সবাইকে জানিয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কেরালা প্রদেশে। পেশায় প্রকৌশলী গোকুল শ্রীধর নামে ২৩ বছর বয়সী ওই ছেলে মায়ের বিয়ে দেয়ার পর ফেসবুকে যে পোস্ট দিয়েছিলেন তা এখন ভাইরাল। মায়ের জন্য শুভকামনা জানিয়ে তার করা ওই পোস্ট নিয়ে পক্ষে কিংবা বিপক্ষে মন্তব্য করছেন অনেকেই।

গোকুল শ্রীধর ফেসবুকে যে পোস্টটি করেছেন তাতে তিনি তার বাবার সঙ্গে মায়ের সম্পর্কের জেরে বিয়ের কথা জানান। মায়ের বিয়ের খবর জানিয়ে তিনি এর জন্য মায়ের প্রশংসা করে তাকে শুভকামনা জানান।

তিনি লিখেছেন, ‘একদিন দেখি বাবার হাতে মার খেয়ে মায়ের কপাল থেকে রক্ত পড়ছে। সেটা দেখে খুব কষ্ট পেয়েছিলাম। মাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম, এসব সহ্য করার কারণ কি? সেইসময় মায়ের দেয়া উত্তর আমার আজও মনে আছে। তিনি বলেছিলেন ওসব নাকি করেন আমার জন্যই।’

Gokul-2

প্রকৌশলী ছেলে গোকুল শ্রীধর

গোকুল আরও লিখেছেন, ‘শুধু আমার ভালোর জন্য এসব নির্যাতন সহ্য করবেন তিনি এটা ভাবতে খারাপ লাগছিল। কেননা অনেক কিছু করার স্বপ্ন ছিল মায়ের। কিন্তু কিছু্তই তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করতে পারেননি। তাই যেদিন মায়ের সঙ্গে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে আসি, তখনই আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম মাকে আবার বিয়ে দেব।’

তিনি ফেসবুকে যে ছবিটি শেয়ার করেছেন সেখানে, মাকে দেখা যাচ্ছে তার স্বামীর সঙ্গে বসে আছেন। ছবিসহ তার সেই পোস্টটি নিমিসষেই ভাইরাল হয়ে যায়। কিছুক্ষণের মধ্যেই ৪৫ হাজারেরও বেশি লাইক ও শেয়ার হয় পোস্টটি।

এসএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :