মমতাকে কংগ্রেসের সভাপতি করার প্রস্তাব

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৪৮ এএম, ১৩ জুলাই ২০১৯

কংগ্রেসের দ্বায়িত্ব নিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দেশের গণতন্ত্র বাঁচাতে এমন প্রস্তাব দিলেন বিজেপির রাজ্যসভার এমপি সুব্রহ্মণ্যম স্বামী।

তার দাবি, বিজেপির একচেটিয়া রাজত্ব চললে বিপন্ন হবে দেশের গণতন্ত্র। ইউনাইটেড কংগ্রেসের সভানেত্রী হোন মমতা।

ইউনাইটেড কংগ্রেস বলতে তিনি এনসিপি, কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেসকে বুঝিয়েছেন।

শুক্রবার টুইটারে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী লেখেন, ‘গোয়া ও কাশ্মীরের পরিস্থিতি দেখার পর আমার মনে হচ্ছে, দেশে একটাই দল বিজেপি থাকলে বিপন্ন হবে দেশের গণতন্ত্র।’

তাহলে কী উপায়? এই প্রশ্ন রেখে তিনি আবার এর একটি সমাধানও দিলেন। স্বামী টুইটারে লিখেন, ‘ইতালিয়ান ও পরিবারের লোকেরা বিদায় নিন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইউনাইটেড কংগ্রেসের সভানেত্রী করা হোক। কংগ্রেসের সঙ্গে মিশে যাওয়া উচিত এনসিপিরও।’

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, দেশের সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী কংগ্রেসের অবস্থা বোঝাতে চেয়েছেন। গোয়ায় কংগ্রেসের ১৫ বিধায়কের মধ্যে ১০ জন বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

অন্যদিকে, কর্নাটকে প্রথমে ১২ বিধায়ক ইস্তফা দিয়েছিলেন কর্নাটক বিধানসভার অধ্যক্ষের কাছে। যাদের অধিকাংশই ছিলেন কংগ্রেসের। এর পরবর্তী পর্যায়ে একাধিক কংগ্রেস বিধায়ক সেই পথ ধরেন। কার্যত সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছে কর্নাটকের কংগ্রেস জেডিইউ জোট সরকার। অন্যদিকে লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ফল যেমন খারাপ, এনসিপির ফলও খারাপ। সেই তুলনায় ভালো ফল করেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস। বিজেপি বিরোধী রাজনীতিকে কটাক্ষ করতে গিয়ে তাই কংগ্রেসের সঙ্গে এনসিপি এবং তৃণমূলের মিশে যাওয়ার কথা বলেছেন তিনি।

জেডএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]