দুটি আম চুরির অপরাধে…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:২১ পিএম, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক যাত্রীর ব্যাগ থেকে দুটি আম চুরি করে মহাবিপদে পড়েছেন এক ভারতীয়। তার এ ঘটনাটি আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। দোষী সাব্যস্ত হলে তার কারাদণ্ড হতে পারে। একই সঙ্গে, আম দুটির মূল্যসহ অতিরিক্ত অর্থদণ্ডও হতে পারে। আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর এ মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮ এক প্রতিবেদনে জানায়, ২৭ বছর বয়সী ওই ব্যক্তি দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কাজ করতেন। চুরির ঘটনাটি ২০১৭ সালের। আম দুটির দুটির মূল্য ৬ দিরহাম, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৩৭ টাকা। চুরির বিষয়টি তিনি স্বীকার করেছেন। তিনি বলছেন, একটি কার্গো থেকে আম দুটি চুরি করেছিলেন। কার্গোটি ভারতের চালান ছিল।

তবে দুবাইভিত্তিক দৈনিক পত্রিকা খালিজ টাইমসের খবরে বলা হয়, তিনি বলেছেন, ওই সময় তিনি খুব তৃষ্ণার্ত ছিলেন এবং পানির খোঁজ করছিলেন। এ সময় তিনি ফলের বক্স খুঁজে পান এবং বক্সের মধ্যে দুটি আম দেখতে পান। পরে আম দুটি খেয়ে ফেলেন।

গত বছরের এপ্রিলে এ ঘটনায় সমন জারি করে পুলিশ এবং পরে ঘটনাটি সম্পর্কে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এর কিছুদিন পরে গ্রেফতার করা হয় এবং চুরির দায়ে অভিযুক্ত করা হয়।

মামলার নথিপত্রে দেখা গেছে, ২০১৭ সালের আগস্টে তিনি আম দুটি খেয়েছিলেন। তবে তাকে কেন দুই বছর পর ২০১৯ সালে বিচারের সম্মুখীন করা হলো, সে সম্পর্কে কিছু উল্লেখ নেই।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষী নজরদারি ক্যামেরার ভিডিও পর্যালোচনা করতে গিয়ে বিবাদী এক যাত্রীর ব্যাগ থেকে চুরির করতে দেখেন বলে জানিয়েছেন দুবাই রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী।

এ ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হলে তাকে কারাদণ্ডের সম্মুখীন হতে হবে। একই সঙ্গে, আমের মূল্য পরিশোধসহ তাকে অতিরিক্ত অর্থদণ্ড করা হতে পারে।

এসআর/পিআর