যুক্তরাষ্ট্র গেলেন রুহানি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:০০ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে তেহরান ত্যাগ করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। আজ থেকে নিউইয়র্কে অবস্থিত সদর দফতরে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪ তম অধিবেশন শুরু হবে। তাতে যোগ দিতেই সোমবার দেশ ছাড়েন তিনি।

প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির আগে শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। তেহরান ত্যাগের সময় সোমবার প্রেসিডেন্ট রহানি বলেন, ‘জাতিসংঘ অধিবেশনে অংশ নিয়ে বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনা করা আমাদের জন্য অপরিহার্য।’

ট্যাঙ্কার আটক থেকে শুরু করে সম্প্রতি সৌদির দুটি রাষ্ট্রীয় তেল স্থাপনায় হামলার জেরে ইরান-যুক্তরাষ্ট্রের উত্তেজনা বেড়েই চলেছে। চলমান এই উত্তেজনার মধ্যেই জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে যুক্তরাষ্ট্র গেলেন ইরানের দুই গুরুত্বপূর্ণ নেতা প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

চলমান উত্তেজনা নিরসনে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা চালানোর ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তিনি একটি সমাধানে পৌঁছাতে সব ধরনের চেষ্টা চালাবেন। রুহানির অভিযোগ, তাকে এবং তার প্রতিনিধি দলকে ভিসা দিতে অনাগ্রহী ছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সম্প্রতি সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি অ্যারামকোর দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন হামলার ঘটনা ঘটে। হামলার দায় স্বীকার করে ইয়েমেনে সৌদি জোটের সঙ্গে যুদ্ধরত হুথি বিদ্রোহীগোষ্ঠী। তবে যুক্তরাষ্ট্র বলছে, হামলার নেপথ্যে আছে ইরান আর সৌদি দাবি করছে যে ড্রোন দিয়ে হামলা হয়েছে তা ইরানের তৈরি।

সৌদির জ্বালানিমন্ত্রী জানিয়েছেন, হামলার কারণে তাদের তেল উৎপাদন অর্ধেকে নেমেছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করে ঘনিষ্ঠ মিত্র সৌদি আরবের পাশে দাঁড়িয়েছেন। স্যাটেলাইট ছবি প্রকাশ করে ওয়াশিংটন দাবি করছে, হামলা হয়েছে ইরানের দক্ষিণ অঞ্চল থেকে।

বরাবরের মতো ইরান সৌদি ও যুক্তরাষ্ট্রের এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ইরানে সামরিক অভিযান চালানোর ব্যাপারে ট্রাম্প প্রশাসন চিন্তা-ভাবনা করছে বলে জানা গেছে। এদিকে ইরানও হুমকি দিয়ে রেখেছে, তাদের ভূমিতে হামলা হলে সর্বাত্মক হামলার মাধ্যমে তা প্রতিরোধ করবে।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশন শুরু হবে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে। এর আগে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন নিউইয়র্কের সাধারণ অধিবেশনের ফাঁকে ইরান-যুক্তরাষ্ট্র আলোচনায় বসবে। কিন্তু পরে আলোচনার বিষয়টি নাকচ করে দেয় তেহরান।

এসএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]