সৌদি হামলায় ইরান জড়িত : ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১০ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সৌদি আরবের দু’টি তেলক্ষেত্রে হামলার জন্য ইরান দায়ী বলে ধারণা ব্রিটেনের। সোমবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, হামলার প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে যুক্তরাজ্য যৌথভাবে কাজ করবে।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানি আরামকোর দু’টি তেলক্ষেত্রে ভয়াবহ ড্রোন হামলা হয়। ইয়েমেনের বিদ্রোহী গোষ্ঠী হুথি তেলক্ষেত্রে হামলার দায় স্বীকার করলেও সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্র বরাবরের মতো ইরানকে দায়ী করছে। তবে ইরান হামলার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে যোগ দিতে সোমবার ব্রিটেন ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। বিমানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ব্রিটিশ এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আরামকোর তেলক্ষেত্রে হামলার জন্য ইরানের জড়িত থাকার জোরালো সম্ভাবনা আছে বলে ধারণা করছে ব্রিটেন। আমাদের ধারণা, খুব সম্ভবত ইরানই এই হামলা চালিয়েছে।’

‘আমাদের মার্কিন ও ইউরোপীয় বন্ধুদের সঙ্গে হামলার প্রতিক্রিয়ায় কাজ করবো; যাতে উপসাগরীয় অঞ্চলের উত্তেজনা প্রশমিত হয়।’

ব্রিটেনের সরকারি এক কর্মকর্তা বলেছেন, হামলার ভয়াবহতার মাত্রা, সক্ষমতা ও পরিসীমা বিবেচনায় হুতিদের জড়িত থাকার দাবি ‘অকল্পনীয়।’ এটা কল্পনাতীত। এই হামলা ইরান সরকারের অনুমতি ছাড়া চালানো সম্ভব নয়।

ইরানের বিরুদ্ধে ব্রিটেন কোনো ধরনের সামরিক অভিযান চালাবে কিনা, এমন এক প্রশ্নের জবাবে বরিস জনসন বলেছেন, সৌদি আরবকে রক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের একটি প্রস্তাবনা অত্যন্ত নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে ব্রিটেন।

তিনি বলেন, ‘সৌদি আরব কিংবা যুক্তরাষ্ট্র যদি পরিষ্কারভাবে আমাদের আহ্বান জানায়, তাহলে আমরা কীভাবে তাদের উপকার করতে পারি সেবিষয়ে বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেব।’

সূত্র : রয়টার্স।

এসআইএস/এমকেএইচ