জাতিসংঘে বিশ্বনেতাদের তুলোধুনো করলেন কিশোরী গ্রেটা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৭ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় ব্যর্থতার জন্য বিশ্ব নেতাদের ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলে নিন্দা করে আবেগপূর্ণ বক্তৃতা করেছে সুইডেনের কিশোরী জলবায়ু আন্দোলনকারী গ্রেটা থানবার্গ। সোমবার নিউইয়র্কে অবস্থিত জাতিসংঘের সদর দফতরে সংস্থাটির জলবায়ু বিষয়ক ওই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন অর্ধশতাধিক বিশ্বনেতা।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানের এক অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, উপস্থিত বিশ্বনেতাদেরকে তীব্র কটাক্ষ করে আবেগময় কণ্ঠে জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে গোটা বিশ্বের রাষ্ট্রনেতাদের অবহেলার কথা উল্লেখ করে ১৬ বছর বয়সী থানবার্গ তার বক্তব্য পেশ করে।

বক্তৃতার শুরুতেই প্রচন্ড আক্রমণাত্মকভাবে কথা বলা শুরু করে থানবার্গ। বিশ্বনেতাদের উদ্দেশে গোটা বিশ্বের তরুণ ও যুব সমাজের হয়ে সে কী বার্তা দিতে চায় এমন প্রশ্ন করা হলে গ্রেটা থানবার্গ বলে, ‘আমাদের বার্তা হলো, আমরা আপনাদের ওপর নজর রাখছি।’

কিশোরী এই জলবায়ু আন্দোলনকারী বলে, ‘বাস্তুসংস্থান ধসে পড়ছে, গোটা বিশ্ব আজ গণবিলুপ্তির (মানুষসহ সকল প্রাণী) হুমকির মুখে অথচ আপনারা সবাই টাকার কথা বলছেন, আপনারা যার যার দেশের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি নিয়ে ভাবছেন। এই সাহস আপনাদের হয় কীভাবে?’

জাতিসংঘের জলবায়ু বিষয়ক ওই সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্যারিসে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে ২০১৫ সালে সারা বিশ্ব চুক্তিবদ্ধ হয়। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৭ সালে প্যারিস চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেন।

থানবার্গ তার বক্তব্যে গোটা বিশ্বের তরুণ সমাজের সঙ্গে বিশ্বনেতারা প্রতারণা ও বিশ্বাসঘাতকতা করেছে বলে অভিযোগ করে। সরকারপ্রধানদের উদ্দেশে সে বলে, ‘আপনারা আমাদের সঙ্গে প্রতারণা করছেন, আমাদের ব্যর্থ করে দিচ্ছেন। আপনাদের বিশ্বাসঘাতকতা বুঝতে পারছে যুবসমাজ।’

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪ তম অধিবেশনে কার্বন নিঃসরণের বিষয়ে বিশ্বনেতারা গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেবেন বলে ভাবা হচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে মারাত্মক হুমকির মুখে থাকা পৃথিবীকে বাঁচাতে গোটা বিশ্বের লাখো তরুণ-যুবক বিক্ষোভ করার পর গতকাল একদিনব্যাপী এই জলবায়ু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

তবে থানবার্গের আশঙ্কা, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে গোটা পৃথিবী কী মারাত্মক ঝুঁকির মুখে আছে বিজ্ঞানীরা দীর্ঘদিন ধরেই তা বলে আসলেও এবারের সম্মেলনেও বৈশ্বিক এই ঝুঁকি মোকাবিলায় নতুন কোনো পরিকল্পনা বিশ্ববাসীর সামনে হাজির করতে পারবেন না বিশ্বনেতারা।

কিশোরী এই জলবায়ু আন্দোলনকারী বলে, ‘আপনারা আপনাদের ফাঁকা বুলি দিয়ে আমার স্বপ্ন এবং আমার শৈশব চুরি করেছেন। ভবিষ্যত প্রজন্মের চোখ আপনাদের এখন আপনাদের ওপর। যদি আপনারা আমাদের ব্যর্থ করতে চান তাহলে আমি বলছি, আপনাদের আমরা কখনোই ক্ষমা করবো না।’

থানবার্গ বিশ্বনেতাদের উদ্দেশে বলে, ‘এই সবকিছুই ভুল। আমার এখানে থাকা উচিত নয়। মহাসাগরের ওপারের স্কুলে আমার থাকার কথা। আমরা এভাবে চলতে দেব না।’ রাষ্ট্র প্রধানদের উদ্দেশে সে বলে, ‘তারা শিশুদের অধিকার রক্ষায় কাজ করবে বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও আদৌ তারা কিছুই করছে না।’

এসএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]