হংকং নিয়ে চীনের বিরুদ্ধে ভালোই লেগেছে অস্ট্রেলিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৬ পিএম, ১২ জুলাই ২০২০

হংকংয়ের পাসপোর্ট নিয়ে বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করছেন এমন দশ হাজার জনকে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে চীনবিরোধী হিসেবে পরিচিত অস্ট্রেলিয়া। সরকারি কর্তৃপক্ষ বলছে, এসব বাসিন্দা তাদের বর্তমান ভিসার মেয়াদ শেষ হওয়ার পর স্থায়ী বসবাসের সুযোগ চেয়ে আবেদন করতে পারবেন।

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলছেন, আধা-স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল হংকংয়ে চীন কর্তৃপক্ষ নতুন একটি কঠোর জাতীয় নিরাপত্তা আইন প্রণয়ন করে তা কার্যকর করার ফলে সেখানকার গণতন্ত্রপন্থী সমর্থকরা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বিচারের মুখোমুখি হতে পারেন। তাই তাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার চিন্তা করছে তার সরকার।

অস্ট্রেলিয়ার ভারপ্রাপ্ত অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী অ্যালান টাজ অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং করপোরেশন টেলিভিশনকে রোববার বলেন, ‘এর অর্থ দাাঁড়াচ্ছে, হংকংয়ের পার্সপোর্টধারী অন্য কোনো দেশে বসবাসের সুযোগ খুঁজছেন এবং আমরা তাদের জন্য আমাদের ভিসা ব্যবস্থার মাধ্যমে তাদের এই পথ তৈরি করে দিচ্ছি।’

তিনি জানান, স্থায়ী বসবাসের সুযোগ পাওয়ার জন্য আবেদনকারীদের ‘চারিত্রিক পরীক্ষা, জাতীয় নিরাপত্তা সংক্রান্ত পরীক্ষা’সহ এরকম আরও কিছু পরীক্ষা পদ্ধতির মধ্য দিয়ে যেতে হবে। তাই এটা স্বয়ংক্রিয় নয়। তবে তারা খুব সহজেই স্থায়ীভাবে বসাবসের সুযোগ পাবেন এরমধ্য দিয়ে নাগরিকত্ব পাওয়ার পথ তৈরি হবে।

চীনের নতুন নিরাপত্তা আইন চালুর প্রতিক্রিয়ায় এর আগে গত সপ্তাহে হংকংয়ের সঙ্গে অপরাধী প্রত্যর্পণ চুক্তি স্থগিত করা ছাড়াও হংকংয়ের বাসিন্দাদের জন্য ভিসার মেয়াদ ‍দুই বছর থেকে বাড়িয়ে পাঁচ বছর করার ঘোষণা দেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।

গত ৩০ জুন চীনের হংকং নিরাপত্তা আইন চালু হওয়ার পর কেবল অস্ট্রেলিয়াই নয় যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা ও ইউরোপীয় ইউনিয় এর তীব্র প্রতিকিয়া জানিয়েছে। হংকংয়ের বাসিন্দাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

মরিসনের অভিযোগ, চীন প্রণীত নতুন নিরাপত্তা আইনে হংকংয়ের ‘বেসিক ল’ এবং স্বায়ত্তশাসন ক্ষুন্ন হয়েছে। আইনটির সমালোচকরা বলছেন, এ আইন চীন সরকারের সমালোচকসহ বিক্ষোভকারীদের আরও সহজে শাস্তি দেওয়ার পথ সুগম করেছে। তবে চীন তাদের সার্বভৌম বিষয়ে কারও নাক গলানো নিয়ে সতর্ক করেছে।

সূত্র: ব্লুমবার্গ

এসএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]