ইরাক-সিরিয়ায় মার্কিন অবস্থানে সিরিজ হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৯ এএম, ০৮ জুলাই ২০২১

গত ২৪ ঘণ্টায় সিরিয়ায় মার্কিন অবস্থান লক্ষ্য করে দফায় দফায় রকেট ও ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। মার্কিন সেনা ও কূটনীতিকদের লক্ষ্য করে তিনবার রকেট হামলা এবং কয়েক দফা ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। দেশটিতে নিযুক্ত মার্কিন ও ইরাকি কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। ইরাকি বিমান ঘাঁটিতে মার্কিন অবস্থান লক্ষ্য করে কমপক্ষে ১৪ বার রকেট হামলা চালানো হয়েছে। এতে দুই মার্কিন সদস্য আহত হয়েছেন।

তবে এখনও পর্যন্ত কোনও গোষ্ঠী ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি। বিশেষজ্ঞদের দাবি, ইরান সমর্থিত মিলিশিয়ারা এসব হামলা চালিয়েছে। গত মাসে ইরাক-সিরিয়া সীমান্তে মার্কিন অভিযানে ইরানের সঙ্গে সম্পর্কিত ইরাকি মিলিশিয়ার চার সদস্য নিহত হয়। সে সময় নিজেদের যোদ্ধাদের হত্যার প্রতিশোধ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় তারা।

এদিকে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলে আইন আল আসাদ বিমান ঘাঁটিতে রকেট হামলার ঘটনায় দু'জন আহত হয়েছে বলে জোটের মুখপাত্র কর্নেল ওয়াইনি মারোত্তো নিশ্চিত করেছেন। বিমানঘাঁটিতে রকেটগুলো আঘাত হেনেছে। প্রথমদিকে তিনি আহতের সংখ্যা তিনজন জানালেও পরে দু'জনের কথা নিশ্চিত করা হয়।

বৃহস্পতিবার সকালে বাগদাদে গ্রিন জোনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে দুই দুফা রকেট হামলা চালানো হয়েছে বলে ইরাকি নিরাপত্তা সূত্রগুলো নিশ্চিত করেছে। একটি সূত্র জানিয়েছে, দূতাবাসের রকেট প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা একটি রকেটের হামলা প্রতিহত করতে সক্ষম হয়েছে। তবে দ্বিতীয় রকেটটি দূতাবাসের কাছেই আঘাত হেনেছে।

ইরাক সীমান্তের কাছে অবস্থিত সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলের আল ওমর তেল ক্ষেত্রে একটি ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স জানিয়েছে, ওই হামলায় কোনও ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এর আগে গত ২৮ জুন ওই একই জায়গায় রকেট হামলা চালানো হয়েছিল।

পেন্টাগন জানিয়েছে, সিরিয়ার পূর্বাঞ্চলে একটি ড্রোন হামলা প্রতিহত করা গেছে। মার্কিন বাহিনীর কোনও সদস্য এতে হতাহত হয়নি এবং সেখানে কোনও ক্ষয়ক্ষতির ঘটনাও ঘটেনি।

দু'দিন আগেই ইরাকের গ্রিন জোনে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে ড্রোন হামলার চেষ্টা করা হয়। দূতাবাস ভবনের নিরাপত্তা রক্ষায় স্থাপিত আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে অন্তত চারবার ড্রোনগুলোকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়া হয়।

মঙ্গলবার ভোররাতে একাধিক ড্রোন মার্কিন দূতাবাসের আকাশে চক্কর দিতে থাকলে সেখানকার সাইরেনগুলো বেজে ওঠে এবং আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা থেকে সেগুলোকে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। এ সময় গ্রিন জোনের নিকটবর্তী আল-কাররাদা, আল-জাদরিয়া ও আল-কাদিসিয়া এলাকা থেকে গুলিবর্ষণের শব্দ শোনা যায়।

এদিকে, ইরাকে সাম্প্রতিক সময়ে মার্কি বাহিনীর ওপর রকেট ও ড্রোন হামলাকে নজিরবিহীন বলে উল্লেখ করেছেন ইরাকি কর্মকর্তারা। গত কয়েকদিনে সেখানে আগের তুলনায় হামলার ঘটনা অনেক বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

এর আগে সোমবার ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলীয় আনবার প্রদেশে আমেরিকার সেনা ঘাঁটি আইন আল আসাদে এক ঝাঁক রকেট আঘাত হানে। এদিকে ইরাকের প্রতিরোধ সংগঠনগুলো দেশটি থেকে সর্বশেষ মার্কিন সেনা প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত সংগ্রাম চালিয়ে যাওয়া অঙ্গীকার করেছে। অপরদিকে মঙ্গলবার ইরাকের উত্তরাঞ্চলে ইরবিল বিমানবন্দরে ড্রোন হামলা চালানো হয়েছে।

টিটিএন/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]