ক্যান্সার থেকে দূরে রাখবে যেসব খাবার

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫৬ এএম, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯

বিশ্বে প্রতিদিনই ক্যান্সার আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। আধুনিক জীবনযাত্রার নানা ক্ষতিকর অভ্যাস আর অনিয়ন্ত্রিত খাদ্যাভ্যাস এই রোগের জন্য অনেকটাই দায়ী। তাই জীবনযাপনে নিয়ন্ত্রণ আনার পাশাপাশি খাবারের তালিকায়ও যোগ করতে হবে কিছু খাবার। তবেই এই মরণব্যাধি থেকে দূরে থাকে সম্ভব। চলুন জেনে নেই কোন খাবারগুলো রাখবেন প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায়-

রসুনে সালফারে পূর্ণ অ্যালিসিন ও ডায়াল্লিল ডিসালফাইড থাকায় তা নানা অসুখ প্রতিরোধ করতে পারে। টিউমার জাতীয় অসুখের প্রবণতা কমাতে সাহায্য করে রসুন। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে প্রস্টেট ক্যান্সার ঠেকাতে রসুনের বিকল্প নেই।

হলুদ হলো প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক। কোলনে কোনোরকম টিউমার বা ঘা কমাতে হলুদ বিশেষ উপকারী। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, টানা এক মাস খাবারের সঙ্গে চার গ্রাম করে হলুদ মশলা হিসাবে যোগ করার পর কোলন ক্যান্সারে আক্রান্তদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে। ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি রুখতেও এই মশলা বিশেষ উপকারী।

ক্যান্সার প্রতিরোধে ব্রকলি বেশ কার্যকরী। ব্রকোলিতে সালফোরাফেন থাকায় তা কোষ ধ্বংসে সক্ষম। কোলন, প্রস্টেট ও ব্রেস্ট ক্যান্সারে ক্ষেত্রে এই সবজি বিশেষ কার্যকর।

Khabar-2

খাদ্যনালির ক্যান্সার রুখতে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড যুক্ত (স্যামন, ম্যাকারেল ইত্যাদি) মাছ খুবই উপকারী। ওমেগা থ্রি থাকায় এই সব মাছ খেলে তা ক্যান্সারপ্রবণ কোষের বৃদ্ধি রুখে দেয়। তা ছাড়া এতে ভিটামিন ডি থাকায় তা ত্বকের ক্যান্সার রুখতেও খুবই কার্যকর।

লেবু শরীরের টক্সিন সরিয়ে শরীরকে বিষমুক্ত রাখে। প্রতি দিন গরম পানিতে একটি আস্ত পাতি লেবুর রস মিশিয়ে খেলে শরীরের টক্সিন দ্রুত বেরিয়ে যায়। সারা দিনে ৩-৪ বার এই পানীয় খেলে তা ক্যান্সারের আক্রমণ ঠেকায়।

গাজর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট জাতীয় খাবার ফ্যাট অক্সিডেশনে বাধা দেয় ও শরীরে ক্যান্সারের কোষ উৎপাদন কমায়। আমেরিকান ক্যান্সার সোসাইটির সমীক্ষা অনুসারে, প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় গাজর যোগ করলে প্রস্টেট ক্যান্সারের আশঙ্কা প্রায় ১৮ থেকে ২০ শতাংশ কমে যায়। ফুসফুসের ক্যানসার প্রতিরোধেও গাজরের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে।

এইচএন/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - [email protected]

আপনার মতামত লিখুন :