‘অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা গণমাধ্যমের সঙ্গে দূরত্ব সৃষ্টি করবে না’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০৯ পিএম, ২৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৫:১৩ পিএম, ২৬ মে ২০২১

কোনো ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা গণমাধ্যম এবং রাষ্ট্রের মধ্যে কোনোভাবে দূরত্ব সৃষ্টি করবে না বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

বুধবার (২৬ মে) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) ২৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। পরে ডিআরইউ মিলনায়তনে সংগঠনের নবীন-প্রবীণ সদস্যদের নিয়ে কেক কাটেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, বর্তমান সরকার গণমাধ্যমবান্ধব সরকার। বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত জীবনে কারাগারের রোজনামচা, অসমাপ্ত আত্মজীবনী এবং বিভিন্ন সময়ে সাংবাদিকদের নিয়ে বক্তব্যগুলো যদি দেখি, তাহলে দেখবেন গণমাধ্যমকে তিনি কতটা গুরুত্ব দিয়েছিলেন। বলা হয় রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ হচ্ছে গণমাধ্যম। সেই গণমাধ্যমের বিভাজন কিন্তু দেশের কল্যাণেও আসে না, মানুষের কল্যাণেও আসে না। এই ঐক্য রিপোর্টার্স ইউনিটি রক্ষা করতে পেরেছে। এজন্য যারা এটি সৃষ্টি করেছিলেন এবং যারা অব্যাহতভাবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাদের প্রতি একজন নাগরিক হিসেবে কৃতজ্ঞতা জানাই।

তিনি আরও বলেন, পরিচালনার ক্ষেত্রে যত ভুলত্রুটি সামনে তুলে ধরা হবে রাষ্ট্র ততবেশি উপকৃত হবে। সংশোধিত হয়ে কাজ করার সুযোগ পাবে। একইভাবে রাষ্ট্রের গুণগতমান উন্নয়ন, উন্নয়নের অগ্রযাত্রা সেটাকেও সামনে নিয়ে আসতে হবে। তাহলে মানুষ বুঝতে পারবে দেশটিকে স্বাধীন করতে ৩০ লাখ মানুষের রক্ত দেয়াটা কতটুকু সঠিক ছিল। আজকের বাংলাদেশ বিশ্বের বিস্ময় ও উন্নয়নের রোল মডেল। আমি আশা করব কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যেন গণমাধ্যম এবং রাষ্ট্রের মধ্যে কোনোভাবে দূরত্ব সৃষ্টি না করে।

পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম বলেন, রিপোর্টার্স ইউনিটি সাংবাদিকদের সর্ববৃহৎ সংগঠন। মূলধারার সাংবাদিকরা এখানে আছেন। করোনার মধ্যে রিপোর্টার্স ইউনিটির যে ভূমিকা, ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস থেকে শুরু করে সাংবাদিকদের জন্য ব্যাপক ভূমিকা রেখেছে সংগঠনটি। গত বছর যখন ঘর থেকে কেউ বের হতে সাহস পেত না তখন আমি এসেছিলাম ডিআরইউর অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিসের উদ্বোধন করতে।

jagonews24

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মসিউর রহমান খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন, ডিআরইউ সভাপতি মুরসালিন নোমানী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

আইএইচআর/এসএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]