বনানীর ধর্ষণের ঘটনা তদন্তে মানবাধিকার কমিশনের কমিটি গঠন


প্রকাশিত: ০৩:০০ পিএম, ০৯ মে ২০১৭

রাজধানীর বনানীতে দুই তরুণী ধর্ষণের ঘটনার তদন্তে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা (বিএসইএইচআর) সাত সদস্যের কমিটি গঠন করেছে। খুব শিগগিরই এ ঘটনার তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন প্রকাশ করবে সংস্থাটি।

মঙ্গলবার বিএসইএইচআর’র কমিউনিকেশন অ্যান্ড ডকুমেন্টেশন কর্মকর্তা ফাতেমা ইয়াসমিনের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে সংস্থার চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সিগমা হুদা বলেন, এ জঘন্য ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও অপরাধীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

তিনি বলেন, ধর্ষণের অপরাধে কঠিন শাস্তির বিধান থাকলেও দেশে তার বাস্তব প্রতিফলন নেই। তাই এ ধরনের ঘটনা ঘটেই চলেছে।

সংস্থার নির্বাহী পরিচালক মোস্তফা সোহেল বলেন, এ ঘটনার সঠিক তদন্তের জন্য বিএসইএইচআরের পক্ষ থেকে সাত সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত শেষে ইনভেস্টিগেশন রিপোর্ট গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, নারীরা সাহস করে  নির্যাতনের অভিযোগ জানিয়েছে, যা  নারীর মানসিক উন্নয়ন ও শক্তির  প্রকাশ। অপরাধীরা যতই প্রভাবশালী হোক না কেন তারা কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়। শাস্তি তাদের পেতেই হবে।

উলেখ্য,  রাজধানীর বনানীতে গত ২৮ মার্চ দুই তরুণী ধর্ষিত হন। অপরাধীরা ধর্ষণের চিত্র ভিডিও করে। তবে প্রাণের ভয়ে তারা এতদিন চুপ থাকলেও অবশেষে থানায় অভিযোগ করেছে।বনানী থানার  পরিদর্শক আবদুল মতিনের বিরুদ্ধে ২৫ লাখ টাকা ঘুষ নেয়ায় অভিযোগ করে ধর্ষিতরা। তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পরিদর্শক আবদুল মতিন।

এফএইচ/জেডএ/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]