আড়ংকে দুই লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৪৫ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

পোশাকশিল্প প্রতিষ্ঠান ‘আড়ং’কে দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। বনানীর ব্লক-জির দুই নম্বর রোডের হোল্ডিং নং-১১ এর দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ তলার কমন স্পেস (আবশ্যিক উন্মুক্ত স্থান) শো-রুমের কাজে ব্যবহার করায় আড়ংকে এ জরিমানা করা হয়েছে। সেইসঙ্গে আড়ংয়ের ওই শোরুমের মালামাল সরিয়ে কমন স্পেস উন্মুক্ত করা হয়।

রোববার এক অভিযানে এ জরিমানা করা হয়। একইসঙ্গে ওই ভবনের পঞ্চম ও ষষ্ঠ তলার লিফটের সামনের কমন স্পেসের জায়গা অফিস হিসেবে ব্যবহার করায় ‘ইউনিক বিজনেস সল্যুশন’ নামক একটি প্রতিষ্ঠানকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়ে।

arong

রাজউক সূত্র জানায়, বনানী এলাকায় অনুমোদন না নিয়ে যেসব প্লট, ভবন, ফ্ল্যাটে গেস্টহাউস, রেস্টুরেন্ট, হোটেল ও বারসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক কার্যক্রম চলছে তা বন্ধে রোববার অভিযান চালানো হয়। সেইসঙ্গে ফুটপাতে যেসব অবৈধ র‌্যাম্প নির্মিত হয়েছে সেসব স্থাপনা-ব্যবহার বন্ধে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হয়।

রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার ও অথরাইজড অফিসার আদিলুজ্জামানের নেতৃত্বে গঠিত টাস্কফোর্স বনানীতে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ বিষয়ে বনানীর ‘আড়ং’ শাখায় কর্মরত ববি আক্তার বলেন, অভিযানের আগে আমাদের নোটিশ দেয়া হয়নি। আজকে এসে আমাদের জরিমানা করে মালামাল সরিয়ে কমন স্পেস উন্মুক্ত করা হয়েছে। যদি আগে নোটিশ দিয়ে থাকে সেটা ভবন মালিক জানে। এ বিষয়ে আমরা কিছু জানি না।

arong

একইভাবে বনানীতে ব্লক-ডির হোল্ডিং নং-৭৬ এর সেট-ব্যাক (ভবনের চারদিকের আবশ্যিক উন্মুক্ত স্থান) এলাকায় অবৈধভাবে নির্মিত আটটি কাপড়ের দোকান উচ্ছেদ করা হয়েছে। এছাড়া হোল্ডিং নং-৭০ এর সেট-ব্যাক এলাকায় অবৈধভাবে নির্মিত একটি ফাস্ট ফুড ও একটি কাপড়ের দোকান উচ্ছেদ করা হয়।

arong

অন্যদিকে রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার ও অঞ্চল-৫০-এর (ধানমন্ডি , লালবাগ) অথরাইজড অফিসার আশীষ কুমার সাহার নেতৃত্বে গঠিত টাস্কফোর্স ধানমন্ডির ১৬ নং রোডে (পুরাতন ২৭) অভিযান চালিয়েছেন। এ অভিযানে দুটি আবাসিক ভবনে অবৈধভাবে চলা দুটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

এ উচ্ছেদ কার্যক্রমে রাজউকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নাসির হোসেন, জোন-৫-এর (ধানমন্ডি, লালবাগ) পরিচালক শাহ আলম চৌধুরী, এস্টেট পরিদর্শক মুকিত-উল-হাফিজসহ অন্য কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন।

এএস/জেডএ/আইআই

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]