শিগগিরই ভেনামি চিংড়ি চাষের সম্ভাব্যতা যাচাই

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫৬ পিএম, ২৬ জুন ২০১৮

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ বলেছেন, শিগগিরই বিশ্বখ্যাত ভেনামি জাতের সাদা চিংড়ি দেশে চাষের সম্ভাব্যতা যাচাই করে পরীক্ষামূলক চাষের ব্যবস্থা করা হবে।

মঙ্গলবার (২৬ জুন) রাজধানীর একটি হোটেলে বিএফএফইএ ও বিপিসির যৌথ উদ্যোগে ‘হিমায়িত চিংড়ি চাষ বৃদ্ধি এবং আনুষাঙ্গিক প্রতিবন্ধকতা দূরীকরণ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা বলতে আমরা চাল-ভাতকে বুঝালেও আসলে মাছ, মাংস, দুধ, ডিম, শাকসবজিও খাদ্যেরই অংশ। তাই রফতানিযোগ্য চিংড়ি মাছেও আমাদের অগ্রগতি অর্জন করা জরুরি। আমরা ইতোমধ্যে দুধে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের কাছাকাছি রয়েছি, ডিমেও স্বয়ংসম্পূর্ণ হতে হবে। 

বক্তারা রফতানিযোগ্য চিংড়ি চাষে বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা, দুর্বলতাসহ নানা কারণে উৎপাদন হ্রাস পাওয়ার তথ্য তুলে ধরেন। বিষয়গুলোতে নজর না দিলে চিংড়ি রফতানির ক্ষেত্রে ধস নামতে পারে বলে আশঙ্কা করেন তারা।

বিগত চার বছরের হিমায়িত চিংড়ি রফতানির নিম্নমুখী চিত্র দিয়ে বলেন, ২০১৩-১৪ অর্থবছরে ৫৫০ মিলিয়ন ডলারের ৪৭ হাজার ৬৩৫ মেট্রিক টন চিংড়ি রফতানি হলেও ২০১৪-১৫, ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ সালে তা কমে দাঁড়ায় যথাক্রমে ৫১০ মি. ডলার মূল্যের ৪৪ হাজার ২৭৮ মে. টন, ৪৭২ মি. ডলারের ৪০ হাজার ২৭৬ হাজার মে. টন ও ৪৪৬ মি. ডলার মূল্যের ৩৯ হাজার ৭০৬ মে. টন।       

সেমিনারে চিংড়ি চাষের ওপর দুটি প্রবন্ধ পাঠ করে মৎস্য অধিদফতরের সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা চিত্তরঞ্জন বিশ্বাস ও সাবেক উপ-পরিচালক প্রফুল্ল কুমার সরকার। 

দেশি বালদা চিংড়ির চেয়ে ভেনামি চিংড়ির উৎপাদন খরচ ২০-৩০ শতাংশ কম থাকায় তারা অন্যান্য দেশের ন্যায় এটিকেও ব্যাপকভাবে চাষাবাদের ওপর জোর দেন। 

বিএফএফইএ এর সভাপতি আমিল উল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনার মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক ও কক্সবাজার-২ আসনে সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক। অন্যান্যের মধ্যে নৌ পরিবহন সচিব আব্দুস সামাদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতি. সচিব মুন্সী সফিউল হক প্রমুখ।   

এমইউ/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]