চুড়িহাট্টা ট্র্যাজেডি : কোনো কমিটিতে ঠাঁই হয়নি ফরেনসিক বিশেষজ্ঞের

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:২৫ পিএম, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯
ফাইল ছবি

রাজধানীর চকবাজারের চুড়িহাট্টায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় একাধিক তদন্ত কমিটি গঠিত হলেও কোনোটিতেই ঠাঁই হয়নি ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) ও স্যার সলিমুল্লাহ মিটফোর্ড মেডিকেল কলেজসহ একাধিক মেডিকেলে পাঠানো লাশের ময়নাতদন্তের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থেকেছে ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের কার্যক্রম।

অজ্ঞাত ২৪ জনের পরিচয় শনাক্তে স্বজনের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেছে সিআইডির ডিএনএ ল্যাবরেটরির কর্মকর্তারা। ডিএনএ নমুনা সংগ্রহের ক্ষেত্রেও রাকা হয়নি ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের।

জানা গেছে উন্নত বিশ্বে এ ধরনের দুর্ঘটনায় হতাহতের প্রকৃত কারণ উদঘাটনে প্রতিটি তদন্ত কমিটিতে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ রাখা হয়। তাদের ছাড়া কোনো কমিটিই গঠিত হয় না। এমনকি তাদের মতামত ছাড়া আদালতে কোনো কাগজপত্রও গৃহিত হয় না। কিন্তু দেশে এ ধরনের দুর্ঘটনায় ফরেনসিক কোনো বিশেষজ্ঞ চিকিৎসককে রাখা হয়নি।

ঢামেক ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান ও বর্তমান মালয়েশিয়া ইউনিভার্সিটি টেকনোলজির সিনিয়র ফরেনসিক কনসালটেন্ট ও ফরেনসিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. নাসিমুল ইসলাম বলেন, ফরেনসিক মানে শুধু ময়নাতদন্ত করা নয়। অগ্নিকাণ্ড কিম্বা যে কোনো দুর্ঘটনার প্রকৃত কারণ উদঘাটনে গঠিত তদন্ত কমিটিতে ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের রাখা হয়। এছাড়া অজ্ঞাত লাশের পরিচয় উদঘাটনে নমুনা সংগ্রহ থেকে শুরু করে প্রতিবেদন দাখিলেও ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞরা কাজ করেন। অন্য কোনো বিভাগের বিশেষজ্ঞরা পরীক্ষানিরীক্ষা করলেও তা সঠিক হয়েছে কীনা তা জানতে চূড়ান্তভাবে ফরেনসিক মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের মতামতকেই আদালতে প্রাধান্য দেয়া হয়। কিন্তু বাংলাদেশেই এর ব্যতিক্রম।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টির উদাহারণ টেনে তিনি বলেন, এ ব্যাপারে ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা নানা পরীক্ষানিরীক্ষার মাধ্যমে মৃতের সঠিক সংখ্যা নিশ্চিতভাবে নির্ণয় করতে পারে।

তিনি আরও বলেন, বিশ্বে ফরেনসিক মেডিসিনের বিভিন্ন সাব স্পেশালিটি তৈরি হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অনেক পিছিয়ে। প্রশিক্ষিত ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ তৈরির জন্য একটি ফরেনসিক ইনস্টিটিউট স্থাপন এখন সময়ের দাবি বলে জানান তিনি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের একাধিক সিনিয়র অধ্যাপক বলেন, চিকিৎসা শিক্ষার বিভিন্ন বিভাগের মধ্যে ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগ সবচেয়ে অবহেলিত।

তারা বলেন, বিশেষায়িত এ বিভাগে অভিজ্ঞতা সম্পন্ন শিক্ষকের প্রকট অভাব। ফলে এখনও ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগের মূল কাজ মানেই লাশ কাঁটাছেঁড়া অর্থাৎ পোস্টমর্টেম করাকে অনেকে মনে করেন।

এমইউ/এএইচ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :