ঈদে বন্ধ চিড়িয়াখানার দিকে শত শত মানুষ, ফিরছেন হতাশা নিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:১৪ পিএম, ১৪ মে ২০২১ | আপডেট: ১১:৪৩ এএম, ১৫ মে ২০২১

করোনাভাইরাসের প্রকোপ রোধে দীর্ঘদিন ধরেই বন্ধ দেশের বিভিন্ন বিনোদন কেন্দ্র। এরই অংশ হিসেবে বন্ধ আছে রাজধানীর মিরপুরের জাতীয় চিড়িয়াখানা। প্রতি বছর ঈদের দিনে চিড়িয়াখানায় মানুষের ঢল নামে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারণে গত বছরের মতো এবার ঈদেও বন্ধ চিড়িয়াখানা। তবে বিষয়টি জানা না থাকায় সেখানে আজ অনেক মানুষ ভিড় করছেন। গেট বন্ধ পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন শত শত মানুষ।

শুক্রবার (১৪ মে) সকাল ৮টার পর থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত দেখা যায়, চিড়িয়াখানায় ঘুরতে এসে বন্ধ দেখে অনেকেই এসে হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

jagonews24

দর্শন প্রত্যাশীরা বলছেন, তারা জানতেন না চিড়িয়াখানা বন্ধ আছে। বন্ধ থাকার বিষয়টি আরও ভালোভাবে সরকারের পক্ষ প্রচার করা প্রয়োজন ছিল। তাহলে ঈদের দিনের মূল্যবান সময় নষ্ট হতো না। সেই সঙ্গে টাকা অপচয় হতো না।

চিড়িয়াখানার কর্মকর্তারা বলছেন, সরকার চিড়িয়াখানা অনেক আগে থেকে বন্ধ রেখেছে। বিষয়টি না জানার পরও যারা আসছেন, তাদেরকে বিষয়টি বুঝিয়ে ফেরত দেয়া হচ্ছে।

jagonews24

সরেজমিন দেখা যায়, রিকশা, সিএনজি ও বাসে করে বাবা-মা তাদের ছোট বাচ্চাদের নিয়ে, কেউ আবার বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে দল বেধে চিড়িয়াখানায় আসছেন তারা। আগতদের মধ্যে শিশুদের সংখ্যা বেশি, রয়েছে তরুণ-তরুণী, মধ্য বয়সী নারী-পুরুষও।

আসার পর পর কেউ কেউ টিকিট কাউন্টারে চলে যাচ্ছেন, কেউবা এর-ওর কাছে জিজ্ঞেস করছেন। অবশেষে চিড়িয়াখানা বন্ধ থাকার বিষয় জানতে পেরে ফিরে যাচ্ছেন তারা।

jagonews24

অনেকে চিড়িয়াখানা বন্ধ থাকার বিষয়টি মানতে না পেরে টিকিট কাউন্টারের সামনে অনেকক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকছেন। চিড়িয়াখানায় দায়িত্বশীল কর্মচারী, আনসার সদস্যরা বাঁশি ফুকিয়ে আগতদের একটু পরপর সরানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দশ বন্ধু মিলে রাজধানীর পাইকপাড়া থেকে ঘুরতে আসেন নূর ইসলাম। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে চিড়িয়াখানায় ঘুরতে আসলাম। কিন্তু এসে দেখি বন্ধ। মনটাই খারাপ হয়ে গেছে। আমরা জানতাম না চিড়িয়াখানা বন্ধ। আমাদের মতো অনেকেই না জেনে এসেছে।’

jagonews24

চিড়িয়াখানার একটি টিকিট কাউন্টারে কাজ করেন মো. শামীম। তিনি জাগো নিউজকে জানান, আজ সকাল ৮টা থেকেই মানুষ চিড়িয়াখানায় আসতে শুরু করেছে। কিন্তু চিড়িয়াখানা বন্ধ থাকায় আমরা তাদেরকে ঢুকতে দিচ্ছি না। দর্শনার্থীদের বুঝিয়ে ফিরিয়ে দিচ্ছি।

তিনি আরও জানান, গত বছরও করোনাভাইরাসের কারণে চিড়িয়াখানা বন্ধ ছিল। এবারও অনেক দিন ধরে বন্ধ আছে। তারপরও মানুষ আসছে।

পিডি/এমএসএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]