ডিএনসিসি আধুনিকায়নে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস মিয়ামি মেয়রের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৩৮ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২৩
ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম এবং মিয়ামি ডেড কাউন্টির মেয়র ড্যানিলিয়া লিভাইন কাভা

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনকে (ডিএনসিসি) আধুনিকায়নে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন ফ্লোরিডার মিয়ামি ডেড কাউন্টির মেয়র ড্যানিলিয়া লিভাইন কাভা। বিশেষ করে মশক নিধন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, দুর্যোগ মোকাবিলায় মিয়ামি সবধরনের সহায়তা করবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব কমার্সের কমার্শিয়াল ল ডেভলপমেন্ট প্রোগ্রামের (সিএলডিপি) আমন্ত্রণে ও অর্থায়নে ডিএনসিসির প্রতিনিধি দলের ১০ দিনের প্রশিক্ষণে তিনি এ আশ্বাস দেন।

আরও পড়ুন: মশা নিধনে ডিএনসিসি এতদিন ভুল পদ্ধতি ব্যবহার করেছে

প্রশিক্ষণের সমাপনী দিনে (২৪ জানুয়ারি) ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম জানান, নগর ব্যবস্থাপনায় মিয়ামির অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারলে ডিএনসিসিকে স্মার্ট সিটির লক্ষ্যে পৌঁছাতে বেগ পেতে হবে না।

সিএলডিপির অধীনে ১০ দিনের প্রশিক্ষণে ক্রয় প্রক্রিয়া, হোল্ডিং ট্যাক্স আদায়, হিসাবরক্ষণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, ড্রেনেজ ব্যবস্থাপনা, কুইক রেসপন্স টিম, মশক নিধনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে হাতে কলমে শিক্ষা নিয়েছে ডিএনসিসির প্রতিনিধি দল।

আরও পড়ুন: ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে ডব্লিউএইচওর সহায়তা চান মেয়র আতিক

শেষ দিনে মিয়ামি ডেড কাউন্টির মেয়রের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে উঠে আসে ১০ দিনের অভিজ্ঞতা। ডিএনসিসি মেয়র তাকে জানান মিয়ামির এই সফর তাকে মশক নিধনে মিয়ামির বিভিন্ন কার্যক্রম সম্পর্কে অভিজ্ঞতা লাভের সুযোগ করে দিয়েছে। পাশাপাশি ডিএনসিসি একটি আধুনিক নগর গড়ে তুলতে মিয়ামি ডেড কাউন্টির সহায়তা চাইলেন তিনি।

এসময় মিয়ামির মেয়র ঢাকাকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন। প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞ প্রতিনিধি পাঠিয়ে ঢাকাকে স্মার্ট সিটি রূপান্তরে সহায়তার আশ্বাস দেন তিনি।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রতিনিধি দলকে আমন্ত্রণ জানাতে পেরে খুশি মিয়ামি ডেড কাউন্টির মেয়র ড্যানিলিয়া লিভাইন কাভা। তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন যদি কোনো সহযোগিতা চায় আমরা তা দিতে প্রস্তুত।

ড্যানিলিয়া লিভাইন কাভা বলেন, বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলকে আমন্ত্রণ জানাতে পেরে আমি খুশি। আমি সত্যি খুশি এবং গর্বিত। গত কয়েক দিনে আমাদের কিছু বিশেষজ্ঞ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময় করেছেন। অলিখিতভাবে অনেকগুলো বিষয়ে আমরা সহযোগিতা করতে পেরেছি। আমাদের অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প রয়েছে। যেগুলো বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলকে দেখানো হয়েছে। ডিএনসিসিকে যে কোনো ধরনের সহযোগিতা করার জন্য আমরা প্রস্তুত।

আরও পড়ুন: যুক্তরাষ্ট্রের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চায় ডিএনসিসি

এসময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম মিয়ামি ডেড কাউন্টির মেয়রকে ঢাকায় আমন্ত্রণ জানান। তিনি বলেন, মিয়ামি ডেড কাউন্টির অভিজ্ঞতা ডিএনসিসিতে বাস্তবায়ন করতে চাই।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ঢাকা থেকে ফ্লোরিডার দূরত্ব হাজার হাজার মাইল। তবে তাপমাত্রা, বৃষ্টিপাত প্রায় একই রকম হওয়ায় ঢাকার এবং ফ্লোরিডার মিয়ামির আবহাওয়ার খুব একটা পার্থক্য নেই। ফলে মিয়ামির ভালো উদ্যোগ যেগুলো আমরা দেখলাম সেগুলোর সঠিক বাস্তবায়ন করতে পারলে সত্যিকার অর্থে স্মার্ট নগর গড়ে তোলা সম্ভব।

প্রশিক্ষণ শেষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা ও কাউন্সিলরদের সার্টিফিকেট তুলে দেন মিয়ামি ডেড কাউন্টির ডেপুটি মেয়র জিমি মোরালেস ও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

এমএমএ/কেএসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।