নির্বাচন থেকে সরতে তালবাহানা করছে বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৮ পিএম, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮
নির্বাচন থেকে সরতে তালবাহানা করছে বিএনপি
ফাইল ছবি

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন থেকে সরে যেতে বিএনপি তালবাহানা করছে বলে অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, তাদের কথা-বার্তায় আমাদের কাছে মনে হচ্ছে বিএনপি নির্বাচন থেকে সরে যেতে চাইছে। এর জন্য তারা নানান ছলচাতুরিসহ তালবাহানা করছে। এটা নাকি গণতন্তের দল। এক বছর দশ মাস ধরে তাদের কোনো মিটিং হয় না।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর শনির আখড়ায় ফুটওভার ব্রিজের উদ্ধোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি এমন একটা দল জাতীয় কাউন্সিলের এক বছর ১০ মাস পরে শুনলাম একটা নির্বাহী কমিটির সভা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সভা প্রতি দুই মাসে বাধ্যতামূলক। এখন বিএনপি সভা করার জায়গা পায় না। ৫০০ কর্মকর্তা এবং সদস্যের জাম্বু জেট মার্কা কমিটি। এই কমিটির জন্য স্থান সংকুলান করতে বিলাসবহুল হোটেলে যেতে হবে। তাদের আর ছোট-খাট হোটেলে জায়গা হচ্ছে না। তারা ৫০০ লোক কোথায় বসাবে? ৫০০ লোককে বসাতে হলে লা মেরিডিয়ান হোটেলেই যেতে হবে। যেটা এখন ঢাকা শহরের সবচেয়ে বিলাসবহুল হোটেল। বিলাসবহুল হোটেলে বসে তারা জনগণের জন্য কর্মসূচি দেবে।

মন্ত্রী বলেন, বেগম জিয়া মামলার রায় হবে। মামলার রায় কি হবে এখন থেকেই তারা বলে দিচ্ছে। রায় তাদের বিরুদ্ধে যাবে... বিরুদ্ধে গেলে আন্দোলন করবে.. আর বিলাস বহুল হোটেলে বসে আন্দোলনের কর্মসূচি দেবেন। বিএনপি এখন অদ্ভুত এক কাণ্ড করে যাচ্ছে।

খালেদা জিয়ার রায়ের দিন আওয়ামী লীগ কোনো কর্মসূচি দেবে না উল্লেখ করে কাদের বলেন, আমাদের কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি নেই। তবে জনগণের জানমাল নিরাপত্তা রক্ষায় আমরা সতর্ক থাকব, সচেতন থাকব। বিশৃঙ্খলা হলে জনগণই সমুচিত জবাব দেবে। কোনো কর্মসূচি দিয়ে মানুষের উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বাড়াতে চাই না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা কোনো পাল্টা কর্মসূচির মধ্যে নেই। তবে বিশৃঙ্খলা হলে এর জবাব জনগণই দেবে। আর রাস্তায় যদি কোনো বিশৃঙ্খলা হয় এটা মোকাবিলা করবে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা বিশৃঙ্খলার জবাব দেবে। পরিস্থিতিই বলে দেবে কী করতে হবে।

এইউএ/এনএফ/পিআর