ফখরুলের জাতিসংঘ সফরে প্রধানমন্ত্রী হতাশ : মোশাররফ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪৭ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের জাতিসংঘ সফরের কারণে প্রধানমন্ত্রী উৎকণ্ঠায় আছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

তিনি বলেন, 'আমাদের মহাসচিব জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টে গেছেন। নিশ্চয় সেটা কোনো না কোনোভাবে প্রধানমন্ত্রীকে আঘাত অথবা হতাশ করেছে।

রোববার সকালে নয়াপল্টনের বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

এর আগে শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিএনপিকে জাতিসংঘ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। তারা নিজেরাই সেখানে গেছে। আসলে বিএনপি মিথ্যাচারে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ওই বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় খন্দকার মোশাররফ আজ এসব কথা বলেন।

'জাতীয় ঐক্যৈর' বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'আমাদের নেত্রী গত বছর বলেছিলেন, নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিতে হবে, সরকারকে পদত্যাগ ও সেনা মোতায়েন করতে হবে। এখন আমরা অত্যন্ত খুশি ও আশাবাদী বিএনপি ও ২০ দলের বাইরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সংগঠন, ব্যক্তি আমাদের দাবীর সঙ্গে একমত। এটি এখন জাতীয় দাবীতে পরিণত হয়েছে। আমরা এটিকে স্বাগত জানাই।'

জামায়াত ছাড়া বিএনপিকে জাতীয় ঐক্য করতে হবে যুক্তফ্রন্টের এমন বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'এ কথা আমরা এখনও শুনিনি, আর তারা শনিবার যেসব দফা দিয়েছেন সেগুলো নিয়ে আমরা এখনও আলোচনা করিনি। সার্বিক বিষয় নিয়ে দলীয় ফোরামে বসে আলোচনা করা হবে।'

খালেদা জিয়ার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ড নিয়ে বিএনপির এই জ্যেষ্ঠ নেতা বলেন, 'স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কথা দিয়েছিলেন আমাদের নেত্রীর পছন্দমত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এবং সরকারের কয়েকজন চিকিৎসক দিয়ে মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হবে। কিন্তু দেখা গেলো মেডিকেল বোর্ডে শুধুই সরকার সমর্থিত চিকিৎসকরা আছেন। আমরা এতে অসন্তুষ্ট। সরকার সমর্থিতদের দিয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ সঠিক হবে না। যারা দেশনেত্রীর চিকিৎসা করতেন তাদের যুক্ত করে মেডিকেল বোর্ড গঠন করে তার উপযুক্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক।'

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ব্যক্তিগত চিকিৎসক না রেখে যে মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে তাতে আমরা হতাশ হয়েছি।

খালেদা জিয়াকে ছাড়া বিএনপি নির্বাচনে যাবে কি-না এমন প্রশ্নে মোশাররফ বলেন, 'আমরা আগেই বলেছি খালেদা জিয়াকে ছাড়া দেশে কখনও সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হবে না। তাই সবার কাছে গ্রহণযোগ্য, অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। আমরা পরিষ্কার বলতে চাই মুক্ত খালেদা জিয়াকে নিয়ে, তার নেতৃত্বে বিএনপি নির্বাচনে যাবে।'

মোশাররফ আরও বলেন, 'গত পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে শনিবার পর্যন্ত আজগুবি ও বায়বীয় অভিযোগের প্রায় ২ হাজার মামলায় লক্ষাধিক নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়েছে।'

তিনি আরও বলেন, 'মৃত ও দেশে না থাকলেও রাজনৈতিক কারণে প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে বিএনপির অনেক নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে গায়েবী মামলা হয়েছে। এসব মামলায় মৃতদেরও পুলিশ নাশকতা ও গোপন বৈঠক করতে দেখেছেন। মূলত নির্বাচন থেকে বিএনপিকে বাহিরে রাখতেই সরকার এসব মামলা করছে।'

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ -সম্পাদক মো. মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেএইচ/এমএমজেড/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :