খন্দকার মোশাররফের স্লিপ অব টাং

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪৮ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা নিশ্চিতের দাবিতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মোশাররফ হোসেন যুবলীগের একজন নেতার বাড়ি থেকে টাকা উদ্ধারের কথা বলতে গিয়ে দুই দফায় যুবদলের নেতার বাড়িতে বলে ফেলেন। পাশে দাঁড়ানো আরেক নেতা তখন কানের কাছে ফিসফিস করে বলেন, স্যার, যুবদল না যুবলীগ। এ সময় তিনি আই এম সরি বলে যুবলীগের একজন নেতার অফিস থেকে নগদ কোটি টাকা এবং ১৭৫ কোটি টাকার এফডিআর ও ডলার উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সামান্য একজন নেতার কাছে এত টাকা থাকলে বড় নেতাদের বাড়িতে অভিযান চালালে আরও বহুগুণ টাকা উদ্ধার হবে।

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধনের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী ওলামা দল।

মোশাররফ হোসেন বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে সমাজের সব স্তরে পচন ধরেছে। প্রশাসনের ছত্রচ্ছায়ায় রাজধানীতে ক্যাসিনো চলছে। এমন কোনো অন্যায় নেই যে এই অবৈধ ও অনির্বাচিত সরকারের আমলে হচ্ছে না। জনগণ আজ নিরাপত্তাহীন, ব্যাংকগুলো দেওলিয়া হয়ে গেছে। ঋণখেলাপিদের না ধরে বরং উৎসাহিত করা হচ্ছে। সরকারের ওপর মহল থেকে সহায়তা না থাকলে এ সব অপকর্ম হতে পারে না।

তিনি আরও বলেন, এ সরকারের অন্যায়, অত্যাচার, নিপীড়ন, অনৈতিক এবং অস্বাভাবিক সরকারের হাত থেতে জনগণকে রক্ষা করতে হলে একটি গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে। কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা ছাড়া গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠা সম্ভব হবে না।

ওলামা দলের আহ্বায়ক পীরজাদা শাহ মো. নেছারুল হকের সভাপতিত্বে আয়োজিত মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম আজাদ, রফিক শিকদার, আবু নাসের রহমতুল্লাহ প্রমুখ।

এমইউ/জেএইচ/এমকেএইচ