বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের প্রেতাত্মারা বিএনপির ঘাড়ে ভর করে আছে

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:১৭ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের প্রেতাত্মারা বিএনপির ঘাড়ে ভর করে এখনও বাংলাদেশে আছে। তারা এখনও ষড়যন্ত্র করছে। তাদের ষড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে।

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে শনিবার বিকেলে রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সভায় সভাপতিত্ব করেন

সভার শুরুতে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ও উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম।

ওবায়দুল কাদের বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালে পরাজয় নিশ্চিত জেনে রাজাকার, আলবদর ও আলশামসদের সহযোগিতায় পাকিস্তানি জান্তারা বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে। এ দেশ স্বাধীন হোক তারা কোনো দিন চায়নি। বাংলাদেশ যেন মেধাশূন্য হয় সে জন্য তারা বেছে বেছে বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করেছে। তারা বাংলাদেশকে মেরুদণ্ডহীন করতে চেয়েছিল।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা না থাকলে যুদ্ধাপরাধী, বুদ্ধিজীবী হত্যাকারীদের বিচার হতো না। জাতি কলঙ্কমুক্ত হতো না। শেখ হাসিনার কারণেই জাতি আজ কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। শেখ হাসিনা আছেন বলেই বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে এবং আরও এগিয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু, প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক, সাবেক আইনমন্ত্রী আবদুল মতিন খসরু, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, শহীদ বুদ্ধিজীবী আলতাফ মাহমুদের কন্যা শাওন মাহমুদ, আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃণালকান্তি দাস, মহানগর আওয়ামী লীগের দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফি ও উত্তরের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান।

এফএইচএস/বিএ/জেআইএম