বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী মালয়েশিয়া

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি মালয়েশিয়া
প্রকাশিত: ০৯:০৫ পিএম, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী মালয়েশিয়া। পেনাং রাজ্যের মালয় মহিলা চেম্বার অব কমার্সে সভাপতি নূরলিজা অথমান সম্প্রতি জাগো নিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন। বাংলাদেশে ম্যানুফ্যাকচারিং, কৃষি ও খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ, মেশিনারিজসহ সম্ভাবনাময় বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগে আগ্রহের কথা প্রকাশ করেন এ ব্যবসায়ী নেতা। বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের মধ্যে ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগের ক্ষেত্র সম্প্রসারণের মাধ্যমে আন্তঃসম্পর্ক ও আন্তঃযোগাযোগ বাড়ানোর প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের লক্ষ্যে পেনাং রাজ্যের একটি উচ্চ পর্যায়ের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদল বাংলাদেশ সফর করবেন।

Malasia4

মালয়েশিয়ার ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিষয়ে কথা হয় পেনাং আইএমজিটি চ্যাপ্টারের চেয়ারম্যান দাতু ফউজদি নাইমের সঙ্গে। মালয়েশিয়ার অগ্রগতিতে বিশেষ করে নির্মাণশিল্প ও পাম চাষে বাংলাদেশের শ্রমিকদের অবদানের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন তিনি।

দাতু ফউজদি নাইম বলেন, আসিয়ান দেশসমূহের মধ্যে মালয়েশিয়া বাংলাদেশকে স্বীকৃতি প্রদানকারী প্রথম দেশ। উভয় দেশ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরাম যেমন- কমনওয়েলথ, ওআইসি ও ন্যামে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে। মালয়েশিয়া প্রতিবেশী দেশ হিসেবে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে। বিনিয়োগ সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে বাংলাদেশ সফরের কথাও জানান তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশের দিকে ধাবিত হচ্ছে সেটাও আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। আমি আশাবাদী আমাদের বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র আরো এগিয়ে যাবে।

Malasia4

এ বিষয়ে কথা হয় মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার শহীদুল ইসলামের সঙ্গে। তিনি বলেন, মালয়েশিয়া আমাদের বন্ধুপ্রতীম দেশ। বাংলাদেশ এখন মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে বিশ্বে পরিচিতি লাভ করেছে। বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে মালয়েশিয়া সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী এমপি ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে বৈঠক করেছি বাংলাদেশের বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ এবং উন্নয়নের কথা তুলে ধরেছি। তারা বাংলাদেশের বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ উল্লেখ করে বাংলাদেশে বিনিয়োগ ও দু’দেশের সঙ্গে চলমান বাণিজ্য বৃদ্ধির আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। এ জন্য উভয় দেশের বাণিজ্য সহযোগিতা বৃদ্ধির আহ্বানও জানিয়েছেন তারা।

হাইকমিশনার আরও বলেন, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ এবং পর্যটন এর সুযোগ ও সম্ভাবনা নিয়ে অধিক হারে বাংলাদেশে বিনিয়োগে উৎসাহিত করতে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন রোড-শো ব্রান্ডিং বাংলাশে নামে কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। চলতি বছরের ২৮ জানুয়ারি পেনাং রাজ্যের একটি পাঁচ তারকা হোটেলের বলরুমে অনুষ্ঠিত হলো ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ। বিনিয়োগে আকৃষ্ট করতে মূলত এ আয়োজন। ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশের অনুষ্ঠানে পেনাং রাজ্যের প্রায় ২ শতাধিক ব্যবসায়ী নেতা উপস্থিত ছিলেন। পর্যায়ক্রমে মালয়েশিয়ার প্রতিটি রাজ্যে ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ সেমিনার করার প্রক্রিয়া চলছে।

Malasia4

শহীদুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে অর্থনৈতিক, সামাজিকসহ সকল ক্ষেত্রে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে, বিশ্ববাসী বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করছে। গত বছর বাংলাদেশ ৭.২ ভাগ জিডিপি গ্রোথ অর্জন করেছে। চলতি বছরে ৭.৮ ভাগ অর্জিত হয়েছে। বাংলাদেশের রফতানি এখন ৩৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি। দেশের ৫০ বছর পূর্তিতে ২০২১ সালে রফতানি ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করতে আমাদের সরকার বিস্তারিত কার্যক্রম গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশের বিনিয়োগ বান্ধব নীতির ফলে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য আসতে শুরু করেছে।

বিনিয়োগকারীদের সুবিধার জন্য প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে দেশের বিভন্ন স্থানে ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছেন। এগুলো বাস্তবায়নের কাজ এগিয়ে চলছে।

বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে চাহিদা মোতাবেক সরকার সবধরনের সহযোগিতা করবে বলেও জানান হাইকমিশনার।

এসএইচএস/এমএস

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :