নিউজিল্যান্ডে হামলার পর নতুন মসজিদ প্রতিষ্ঠা

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:০৯ পিএম, ২৯ এপ্রিল ২০১৯

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে হামলার পর দেশটির বন্দরনগরী ক্যান্টারবেরি অঞ্চলের তিমারু শহরে নতুন একটি মসজিদ প্রতিষ্ঠা করছে মুসলিম শিক্ষা ট্রাস্ট। ক্রাইস্টচার্চ থেকে ১৫৭ কিলো মিটার দক্ষিণ-পশ্চিমের শহর টিমারু।

ইসলামিক সংস্কৃতি বিকাশের লক্ষ্যে এবং স্থানীয়দের উপাসনার সুবিধার্থে সম্প্রতি তারা একটি বাড়ি কেনার কথা চূড়ান্ত করেছে। যদি সব কিছু পরিকল্পনা মাফিক সঠিক থাকে তবে আগামী ৫ মাসের মধ্যে তা সম্পন্ন হবে বলে জানা যায়।

টিমারুর মুসলিম কমিউনিটি নেতা মানসুর শাহ বলেন, ‘টিমারু মুসলিম শিক্ষা ট্রাস্ট শহরের নেপিয়ার রোডের দ্য সিক্রেড হার্ট প্যারিস সেন্টারটি ৪ লাখ ২৫ হাজার ডলারে কেনার উদ্যোগ নিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা মুসলিম সম্প্রদায়কে ধর্মীয় বিষয়ে প্রশিক্ষণ দিতে চাই। তারা যেন ইসলামকে ভালোভাবে জানতে পারে।

মুসলিম শিক্ষা ট্রাস্ট বাড়িটি কেনার ব্যাপারে প্রস্তাব পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কিছু টাকা পরিশোধ করা হয়েছে। মসজিদের বাকি কাজ সম্পন্ন করতে তহবিল গঠন করা হয়েছে।

টিমারুতে ধর্মীয় অনুশীলনের জন্য এবং মুসলিম প্রজন্মকে ধর্মের প্রতি উদ্বুদ্ধ করতেই এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এ মসজিদ কমপ্লেক্সে মুসলিম ধর্মাবলম্বী ছাড়াও অন্যান্য ধর্মের লোকদের উপাসনার সুযোগও থাকবে।

এ মসজিদে অভিবাসী ও শরনার্থীদের জন্য থাকবে ভাষা ও অন্যান্য প্রশিক্ষণের সুব্যবস্থা। যাদের বেশির ভাগ মানুষই মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে এসেছে।

টিমারুতে বসবাসরত অনেক মুসলিম রয়েছে যাদের সন্তানদের বয়স ২ থেকে ১৫। যারা ধর্মীয় শিক্ষা থেকে বঞ্চিত। তাদের ধর্মীয় শিক্ষার সুযোগ দিতে এ মসজিদটি অনেক কার্যকরী সুবিধা পাওয়া যাবে।

টিমারুর অরাকি অভিবাসন কেন্দ্র পরিদর্শন কালে কমিউনিটি ও স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক মন্ত্রী পিনি হেনরি বলেন, ‘টিমারুতে মুসজিদ নির্মাণের উদ্যোগ অনেক ভালো। এটি আমাদের জন্য বড় সুখবর। এতে আমি আনন্দিত।

মন্ত্রী জানান, ‘মসজিদটি শুধুই ধর্মীয় প্রার্থনার জন্যই ব্যবহার হবে না বরং এটি মুসলিম কমিউনিটি সেন্টার হিসেবে ব্যবহার হবে। অভিবাসী সব সম্প্রদায় এটি দ্বারা উপকৃত হবে।

অরাকি অভিবাসন কেন্দ্রের পরিচালক হোস্টন বলেন, ‘টিমারুতে মসজিদ প্রতিষ্ঠা পেলে তা শুধু মুসলিমরাই উপকৃত হবে না। বরং তাদের ধর্মীয় উপসনা, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের পাশাপাশি অন্যান্য সম্প্রদায়ের কল্যাণেও আসবে। যা সবাইকে সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ করবে।

এমএমএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :