সকাল-সন্ধ্যায় বিশ্বনবি যে দোয়া পড়তেন

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১০ পিএম, ১৫ জুলাই ২০১৯

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সকাল-সন্ধ্যায় অনেক দোয়া পড়তেন। রাত শেষে সকালে উঠেই তিনি আল্লাহর প্রশংসা করতেন। তাওহিদের ঘোষণা দিতেন। পরকালের স্মরণ করতেন। সন্ধ্যায়ও এর ব্যতিক্রম ছিল না।

এটিই ছিল বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দুনিয়ার মিশন সফলের অন্যতম মূলমন্ত্র। এ প্রশংসা বাক্য বা দোয়া থেকেই তিনি দ্বীনের কাজের অনুপ্রেরণা লাভ করতেন, যা উম্মতে মুহাম্মাদির জন্য সুমহান শিক্ষা।

এ শিক্ষা বাস্তবায়নে মুসলিম উম্মাহর উচিত সকাল-সন্ধ্যায় বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম পঠিত আল্লাহর প্রশংসা, তাওহিদের ঘোষণা ও পরকালের স্মরণের মাধ্যমে নিজেদের ঈমানকে মজবুত করা।

হাদিসে এসেছে, হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন সকালে উঠতেন, তখন বলতেন-

اَصْبَحنَا و اَصْبَحَ الْمُلْكُ لِلّهِ وَ الْحَمْدُ كُلُّهُ لِلّهِ لَا شَرِيْكَ لَهُ - لَا اِلَهَ اِلَّا اللهُ وَ اِلَيْهِ النُّشُوْرُ

উচ্চারণ : ‘আসবাহনা ওয়া আসবাহাল মুলকু লিল্লাহ, ওয়াল হামদু কুল্লুহু লিল্লাহি লা শারিকা লাহু, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়া ইলাইহিন নুশুর।’

অর্থ : ‘আমাদের সকাল হয়েছে, শুধু আমাদের নয়, দুনিয়ার সবারই সকাল হয়েছে। আর সব প্রশংসা আল্লাহর জন্য। তার সমকক্ষ কেউ নেই। আল্লাহ ছাড়া আর কোনো উপাস্য নেই। পুনরুত্থিত হয়ে তার কাছেই ফিরে যেতে হবে।’

আর যখন সন্ধ্যা হতো তখন তিনি বলতেন-

أَمْسَيْنَا وَ أَمْسَى الْمُلْكُ لِلّهِ وَ الْحَمْدُ كُلُّهُ لِلّهِ لَا شَرِيْكَ لَهُ - لَا اِلَهَ اِلَّا اللهُ وَ اِلَيْهِ الْمَصِيْرُ

উচ্চারণ : ‘আমসাইনা ওয়া আমসাল মুলকু লিল্লাহ, ওয়াল হামদু কুল্লুহু লিল্লাহি লা শারিকা লাহু, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়া ইলাইহিল মাসির।’

অর্থ : ‘আমাদের সন্ধ্যা হয়েছে, শুধু আমাদের নয়, দুনিয়ার সবারই সন্ধ্যা হয়েছে। আর সব প্রশংসা আল্লাহর জন্য। তার সমকক্ষ কেউ নেই। আল্লাহ ছাড়া আর কোনো উপাস্য নেই। আল্লাহর কাছেই সবাইকে ফিরে যেতে হবে।’ (আদাবুল মুফরাদ)

বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যেমন সকালে ওঠে আল্লাহর প্রশংসা ও তাওহিদের ঘোষণায় দিনের কাজ শুরু করতেন। ঠিক তেমনি সন্ধ্যায়ও আল্লাহর প্রশংসা, তাওহিদের ঘোষণা ও আখেরাতের স্মরণে দিন শেষে রাতের বিশ্রাম ও ইবাদতে লিপ্ত হতেন।

মুসলিম উম্মাহ তথা উম্মতে মুহাম্মাদির জন্য এটা এক মহান শিক্ষা। সকাল ও সন্ধ্যায় মহান আল্লাহর প্রশংসা, তাওহিদের ঘোষণা ও পরকালের স্মরণের এ পদ্ধতি দুনিয়ার সব অপরাধ থেকে বিরত রাখতে সর্বাধিক ভূমিকা পালন করবে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার জীবনের প্রতি সকাল ও সন্ধ্যায় বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শেখানো আল্লাহর প্রশংসা, তাওহিদের ঘোষণা ও পরকালের স্মরণের এ পদ্ধতি অনুসরণ করার মাধ্যমে দুনিয়া ও পরকালের সফলতা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :