ইয়াসিরের দূরন্ত সেঞ্চুরিও জেতাতে পারলো না ব্রাদার্সকে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৫ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৯

দুই হাফ সেঞ্চুরি আর একটি প্রায় হাফ সেঞ্চুরির ওপর ভর করে আবাহনী লিমিটেডের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছিল মাত্র ২৩৬ রান। মামুলি এই সংগ্রহ পাড়ি দিতে গিয়ে দুরন্ত সেঞ্চুরি করে গত বিপিএলের আলোচিত ক্রিকেটার ইয়াসির আলি। কিন্তু তার এই সেঞ্চুরি মোটেও কাজে আসলো না।

মিরপুরের শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ইয়াসির আলির সেঞ্চুরি সত্ত্বেও ব্রাদার্স ইউনিয়নকে থেমে যেতে হয়েছে মাত্র ২২২ রানে। ফলে মাত্র ১৪ রানের দারুণ এক জয় পেয়েছে আবাহনী লিমিটেড।

৩ রাউন্ড শেষে এখনও পর্যন্ত শীর্ষে আবাহনী। সবগুলো ম্যাচেই জয় তাদের। ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষেই রয়েছে আকাশী-হুলদ জার্সিধারীরা। ৩ ম্যাচে ২ জয়ে ৪ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব।

মিরপুরে টস জিতে আবাহনীকেই প্রথমে ব্যাট করার আমন্ত্রণ জানান ব্রাদার্স অধিনায়ক মোহাম্মদ শরীফ। ব্যাট করতে নেমে শুরুতে দারুণ বিপর্যয়ে পড়ে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ১ রান করেই ফিরে যান ওপেনার জাহিদ জাভেদ।

ভারতীয় ব্যাটসম্যান ওয়াসিম জাফর আজই প্রথম মাঠে নামেন আবাহনীর হয়ে। কিন্তু তিনিও আউট হয়ে গেলেন মাত্র ৮ রান করে। আরেক ওপেনার জহুরুল ইসলাম করেন মাত্র ১৪ রান।

ব্রাদার্সের বোলারদের সামনে প্রথম কার্যকর প্রতিরোধ গড়েন নাজমুল হোসেন শান্ত এবং অধিনায়ক মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত। ৭২ বরে ৪৪ রান করেন শান্ত। ৯৫ বল খেলে ৫৪ রান করেন মোসাদ্দেক হোসেন। ১৭ বল খেলে ১৩ রান করে আউট হয়ে যান সাব্বির রহমান।

শেষ দিকে কিছুটা ঝড় তুলেছিলেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ৪৫ বলে ৫৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিনি। ৪টি বাউন্ডারির সঙ্গে ২টি ছক্কার মারেন তিনি। ১৫ ২৬ রান করেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

জয়ের জন্য ২৩৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বিপর্যয়ে ব্রাদার্স। মাশরাফির হাতে শুরুতেই রান আউট হয়ে যান মিজানুর রহমান। সাইফুদ্দিনের বলে আরিফুল হাসানের হাতে ক্যাচ দিয়ে শূন্য রানে ফেরেন হামিদুল ইসলাম। জুনায়েদ সিদ্দিকি আউট হন ১৭ রান করেন।

ভারতের চিরোগ জানি করেন ১৫ রান। অন্যরা আসা-যাওয়ার মিছিলের মধ্যে থাকলেও একমাত্র ব্যতিক্রম ছিলেন ইয়াসির আলি। ১১২ বলে ১০৬ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। ৮টি বাউন্ডারির সঙ্গে ২টি ছক্কার মারও মারেন তিনি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার এই ইনিংস আর কোনো কাজে লাগেনি। ব্রাদার্সকে হারতে হয়েছে ১৪ রানের ব্যবধানে।

মাশরাফি এবং সাব্বির রহমান নেন ২টি করে উইকেট। মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন এবং সানজামুল ইসলাম নেন ১টি করে উইকেট।

আইএইচএস/এমকেএইচ