১০৬ রানের জবাবে অলআউট মাত্র ৯৪ রানে!

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৯ পিএম, ১৪ মার্চ ২০১৯

ফতুল্লার খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামের উইকেট বেশ রহস্যময়তার জন্ম দিলো আজ। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব এবং শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবের ম্যাচ অনুষ্ঠিত হলো এখানে। স্লো উইকেট কাকে বলে এবং কত প্রকারও কি কি- সবই এই দুই দলকে দেখিয়ে দিলো ফতুল্লাহর উইকেট।

তবে এই ম্যাচে দারুণ অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখান শেখ জামালের অলরাউন্ডার জিয়াউর রহমান। রান খরার উইকেটে সর্বোচ্চ ৪১ রান করার পাশাপাশি বল হাতেও সর্বোচ্চ ৫ উইকেট নেন তিনি। ম্যাচ সেরার পুরস্কারও ওঠে তার হাতে। মূলতঃ তার একার হাতেই শেষ হয়ে যায় শাইনপুকুর।

শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অলআউট হয়ে যায় মাত্র ১০৬ রানে। জবাব দিতে নেমে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব অলআউট হয়েছে মাত্র ৯৪ রানে। ১০৬ রান করেও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব জিতলো ১২ রানের ব্যবধানে।

বিরুপ আবহাওয়ার কারণে খেলা শুরু করতে বিলম্ব হয় ফতুল্লায়। যে কারণে দু’দলের কাছ থেকেই ৪ ওভার করে কেটে নেন ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ। টস হেরে ব্যাট করতে নামে শেখ জামাল। কিন্তু শুরু থেকেই শাইনপুকুর বোলারদের দাপটের সামনে দাঁড়াতে পারেনি শেখ জামালের ব্যাটসম্যানরা।

ইমতিয়াজ হোসেন ৬, ফারদিন হাসান ৩ রানে আউট হয়ে যাওয়ার পর ভারতের পুনিত বিস্ট ৫০ বল খেলে মাত্র ২২ রান করে আউট হয়ে যান। নাসির হোসেন করেন ১৩ রান। অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান রানের খাতাই খুলতে পারেননি। তানবির হায়দার করেন ১৪ রান। একমাত্র জিয়াউর রহমানই কিছুটা প্রতিরোধ গড়তে পেরেছিলেন। ৫৮ বলে তিনি করেন ৪১ রান।

শেষ পর্যন্ত ৩৫.১ ওভারেই মাত্র ১০৬ রানে অলআউট হয়ে যায় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। সাব্বির হোসেন ৬ ওভারে ২৮ রান নিয়ে ৪ উইকেট নেন। শরিফুল ইসলাম নেন ৩ উইকেট। দেলওয়ার হোসেন নেন ২টি এবং শোহরাওয়ার্দী শুভ নেন ১ উইকেট।

জবাব দিনে নেমে ভারতের উদয় কাউল এবং সাব্বির হোসেন মিলে ওপেনিং জুটিতেই তুলে ফেলেন ৪৬ রান। উদয় কাউল নেন ১৭ রান এবং ২৬ রান করেন সাব্বির হোসেন। এরপর আর দাঁড়াতেই পারেনি কোনো ব্যাটসম্যান। এমনকি সোহরাওয়ার্দী শুভ (১৩) ছাড়া আর কেউ দুই অংকের ঘরও স্পর্শ করতে পারেনি।

৮.৪ ওভারে বিনা উইকেটে ৪৬ রান থেকে ২৯ ওভারে ৯৪ রানে অলআউট শাইনপুকুর। জিয়াউর রহমান একাই নেন ১০ ওভারে ২৩ রান দিয়ে ৫ উইকেট। সালাউদ্দিন শাকিল নেন ৪ উইকেট। শহিদুল ইসলাম নেন ১টি। ব্যাটে-বলে অলরাউন্ড নৈপুণ্য দেখিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জিতে নেন জিয়াউর রহমান।

আইএইচএস/এমকেএইচ