সবকিছুর ওপর নিষেধাজ্ঞা বসানো যায় না : আইপিএল প্রসঙ্গে কোহলি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১১ পিএম, ১৭ মার্চ ২০১৯

চলতি বছর হতে যাওয়া ওয়ানডে বিশ্বকাপের আগে নিজেদের সবশেষ একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে ফেলেছে ভারতীয় ক্রিকেট দল। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সে ম্যাচ এবং পাঁচ ম্যাচের সে সিরিজ- দুটিই হেরেছে বিরাট কোহলির দল। বিশ্বকাপের আগে যা মোটেও আদর্শ পরিস্থিতি নয়।

এর মধ্যে এখন আবার মার্চের ২৩ তারিখ থেকে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আইপিএল খেলতে নেমে পড়বে ভারতীয় ক্রিকেটাররা। যা শেষ হবে বিশ্বকাপ শুরুর অল্প কিছু দিন আগে। ওয়ানডে বিশ্বকাপ শুরুর আগে ভারতীয় ক্রিকেটারদের প্রস্তুতি হবে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলে।

এমতাবস্থায় ওয়ানডে খেলার প্রস্তুতি এবং নিজেদের ফিটনেস ধরে রাখার জন্য ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি শুরুতে পরামর্শ দিয়েছিলেন যাতে তার দলের ক্রিকেটাররা আইপিএলের ম্যাচগুলো বেছে বেছে খেলেন। তবে আইপিএল যখন দরজায় কড়া নাড়ছে তখন ভিন্ন কথাই বললেন ভারতীয় অধিনায়ক।

তার মতে কারো ওপরে বাঁধা বসানো সম্ভব না, যারা পারবে তারা আইপিএল খেললেও সমস্যা নেই কোহলির। আইপিএলে নিজ দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর নতুন মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন উদ্বোধনের সময় টুর্নামেন্টের আসন্ন মৌসুমের ব্যাপার নিজের কথা বলেন কোহলি।

তিনি বলেন, ‘আপনি যেকোনো কিছুর ওপর নিষেধাজ্ঞা বসিয়ে দিতে পারেন না। আমি যদি ১০-১২ বা ১৫টা ম্যাচ খেলতে পারি, তার মানে এই না যে আরেকজনকেও এতোগুলো ম্যাচ খেলতে হবে। আমার শরীর হয়তো বলবে যে আমি যাতে কিছুসংখ্যক ম্যাচ খেলি এবং কিছুদিন বিশ্রামে কাঁটাই।’

‘একইভাবে অন্য কেউ হয়তো আমার চেয়ে বেশি কিংবা কম ম্যাচ খেলার সক্ষমতা অর্জন করতে পারে। এটা পুরোটাই ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমি জানি সবাই বিশ্বকাপ খেলতে চায়। তাই সবাই নিজের ব্যাপারটা ভালোই বুঝবে। কারণ কেউই এতো বড় টুর্নামেন্ট মিস করতে চাইবে না।’

এ সময় অধিনায়ক হিসেবে দলের খেলোয়াড়দের প্রতি কোহলি বলেন, ‘দায়িত্ববোধ থেকে ভারতীয় ক্রিকেট দলের সবারই উচিৎ হবে আইপিএল খেললেও নিজেদের ফিটনেস ধরে রাখা এবং ওয়ার্কলোডের ব্যাপারে অবগত থাকা। এবং ভারতীয় দলের যে রীতি, নিজের মানকে আরও উঁচুতে ওঠানো। আমি মনে করি প্রত্যেক খেলোয়াড় আইপিএলকে বিশ্বকাপে ভালো করার জন্য প্রস্তুতির মঞ্চ হিসেবেই নেবে।’

এসএএস/আরআইপি

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]