ঝিরঝিরে বৃষ্টিতেই সেন্টার উইকেটে তামিম-মুশফিকদের ব্যাটিং

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা টনটন থেকে
প্রকাশিত: ০৯:১৪ পিএম, ১৪ জুন ২০১৯

শুরুর আগে বৃষ্টি তিন দফা বাগড়া দিল। একবার বলা হলো বৃষ্টি একটু জোরে হচ্ছে, তাই খোলা আকাশের নিচে প্র্যাকটিস করা সম্ভব হবে না। ব্যাটিং প্র্যাকটিস হবে সমারসেট কাউন্টি ক্লাবের ইনডোরে।

ইনডোরে প্র্যাকটিস শুরুর প্রস্তুতিও চলছিল। ঠিক তখনই বৃষ্টির প্রকোপ গেল কমে। তাই প্র্যাকটিস আবার টনটনের সমারসেট কাউন্টি ক্লাব মাঠেই স্থানান্তর হলো। অনুশীলনের শুরুতে হালকা স্ট্রেচিং আর গা গরমের জন্য ফুটবল খেলা দিয়ে শুরু। তারপর ক্যাচিংয়ের বিশেষ ড্রিল হলো দুই ভাগে।

মুশফিক, সৌম্য, সাব্বির, মিঠুন, মোস্তাফিজ, সাইফউদ্দীন ও রাহিরা আগে থেকেই ফুটবল খেললেন। তাদের সাথে পেস বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশও যোগ দিলেন। তারপর একে একে মিরাজ, অধিনায়ক মাশরাফি, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ আর তামিমও যোগ দিলেন।

খুব অল্প দূরত্ব থেকে একজন আরেকজনকে অতি দ্রুত বল ছুড়ে দিলেন। তা ধরে মুহূর্তের মধ্যে আবার অন্য আরেকজনকে ছুড়ে দেয়া হলো। মূলত ক্ষিপ্রতা আর চপলতা বাড়ানোর জন্যই এমন বিশেষ প্র্যাকটিস ড্রিল।

নিজেদের মধ্যে হৈ-হুল্লোড় করেই ক্রিকেটাররা ঐ পর্বে অংশ নিলেন। এর মধ্যে চলে আসলো বৃষ্টি। কিন্তু তাতেও দমলেন না টাইগাররা। বৃষ্টি একটু ধরে আসতেই সেন্টার উইকেটে শুরু হয়ে গেল ব্যাটিং প্র্যাকটিস। তামিম, সৌম্য, মুশফিক আর রিয়াদ এক সাথে চার নেটে দাঁড়িয়ে গেলেন প্রথমে। চললো বেশ কিছুক্ষণ নেটে ব্যাটিং অনুশীলন।

এদিকে তামিম, সৌম্য, মুশফিক আর রিয়াদরা যখন নেটে নিবিড় ব্যাটিং অনুশীলনে ব্যতিব্যস্ত, ঠিক তখন অধিনায়ক মাশরাফি ড্রেসিং রুম আর গ্র্যান্ডস্ট্যান্ডের সামনে খানিকক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে উপস্থিত সাংবাদিকদের সাথে কিছুক্ষনণকথা বার্তা বলে চলে গেলেন নেটে বল করতে।

আগেই জানিয়েছেন, তার আর তামিম ইকবালের জন্য ম্যাচের আগের দিন ও তার আগের কটা দিনের অনুশীলনের আছে অন্যরকম তাৎপর্য। মাশরাফিও এক পর্যায়ে গিয়ে যোগ দিলেন নেটে।

সেই কার্ডিফের ম্যাচের আগের দিন থেকে শুরু। তারপর আউটডোর প্র্যাকটিস, নেটে ব্যাটিং-বোলিং করার সুযোগ মেলেনি। আজ (শুক্রবার) বৃষ্টিভেজা দিনেও তাই সমারসেটের মাঠে সেন্টার উইকেটে নেট করার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাননি ক্রিকেটাররা।

চাওয়ার কথাও না। কারণ সবাই ব্যাটিংটাকে আরও উজ্জ্বল করতে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ। ব্যাটসম্যানদের সবাই ব্যাট হাতে জ্বলে ওঠার অপেক্ষায়। সবাই সামর্থ্যের সেরাটা উপহার দিতে সচেষ্ট। আন্তরিকও।

তারপরও একেক জনের প্রকাশ একেক রকম। তবে তামিম ইকবাল আর মুশফিকের তাড়া, বাসনা আর ভাল করার তাগিদটা একটু বেশি চোখে পড়ে। আজও ক্রিকেটারদের মধ্যে সবার আগে ড্রেসিংরুম থেকে বের হয়ে মাঠের ভেতরে গিয়ে উইকেট খুঁটিয়ে দেখার চেষ্টা করলেন মুশফিক। মাঠ কর্মী ও কিউরেটরদের সাথে কথা বলে উইকেট সম্পর্কে ধারণাও নিতে চাইলেন। তারপর চললো নেটে বেশ সময় নিয়ে ব্যাটিং অনুশীলন।

এআরবি/এমএমআর/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :