‘আফগানদের ভয় পায় না বাংলাদেশ, তবে সমীহ করে’

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা সাউদাম্পটন, ইংল্যান্ড থেকে
প্রকাশিত: ০৮:০১ পিএম, ২৩ জুন ২০১৯

শেষ দুই ম্যাচে দুই রকম চরিত্র দেখা গেছে আফগানিস্তানের। ইংল্যান্ডের সামনে হয়েছে তুলোধুনো। ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা ছক্কার পর ছক্কা মেরেছে আফগান বোলারদের। টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ স্কোর ৩৯৭ রান আফগানদের বিপক্ষেই করেছিল ইংলিশরা।

কিন্তু পরের ম্যাচেই সাউদাম্পটনের রোজ বোলে শক্তিশালী ভারতের বিপক্ষে দেখা গেলো অন্য এক আফগানিস্তানকে। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপের সামনে রীতিমত ত্রাহি অবস্থা তৈরি করেছিল আফগান বোলাররা। যে কারণে শেষ পর্যন্ত মাত্র ২২৪ রান করতে সক্ষম হয় বিশ্বকাপের অন্যতম ফেবারিট ভারত।

যদিও শেষ পর্যন্ত আফগানিস্তান জিততে পারেনি। মাত্র ১১ রানে হারতে হয়েছে তাদের। ভারতীয় বোলারদের সামনে আরেকটু ক্যালকুলেটিভ ব্যাটিং করতে পারলে জয়টা ধরাও দিতে পারতো তাদের সামনে। কিন্তু অভিজ্ঞতার কাছেই সুবর্ণ সুযোগটা হাতছাড়া করতে হয়েছে নবীন আফগানিস্তানকে।

সেই রোজ বোলেই একদিন বিরতি দিয়ে আফগানরা মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশের। বিশ্বকাপে খেলার জন্য ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে আফগানরা জোর গলায় বলে গিয়েছিল, একটি ম্যাচ অন্তত জিততে চায় তারা। সেটা হচ্ছে বাংলাদেশের বিপক্ষে।

আবার আফগানরা তুলনামূলক দুর্বল হলেও, তাদের নিয়ে কেন যেন একটা ভয় কাজ করে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মনে। বিশেষ করে দুই আফগান বোলার রশিদ খান এবং মুজিব-উর রহমানকে নিয়ে। এই ভয়েই তটস্থ থাকার কারণে, গত বছর ভারদের দেরাদুনে গিয়ে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়ে এসেছে টাইগাররা। গত এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচেও ১৩৬ রানের বড় ব্যবধানে আফগানদের কাছে হেরেছিল বাংলাদেশ।

ভারতের বিপক্ষে দারুণ উজ্জীবিত এক আফগানিস্তানকে দেখার পর সেই ভয় কি আবারও মাথাছাড়া দিয়ে উঠছে? এমন প্রশ্ন উঠলো আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচের আগেরদিন আজ সংবাদ সম্মেলনে, বাংলাদেশ দলের কোচ স্টিভ রোডসের কাছে।

প্রশ্ন শুনে বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বাংলাদেশ দলের কোচ স্টিভ রোডস জানিয়ে দিলেন, আফগানিস্তানকে কোনোরকম ভয় পাচ্ছে না বাংলাদেশ। তবে প্রতিপক্ষ হিসেবে অবশ্যই সম্মান এবং সমীহের চোখে দেখেন।

স্টিভ রোডস বলেন, ‘আমরা আফগানিস্তানকে ভয় পাই না। তবে সন্মান ও সমীহর চোখে দেখি। তারা ভাল দল। লড়াকু দল। রশিদ খান, মোহাম্মদ নবি আর মুজিব-উর রহমানের মত ভাল স্পিনার আছে। তারপরও চিন্তা ও উদ্বেগের কিছু নেই। আমরা অনেক কোয়ালিট স্পিনারের বিপক্ষে নিয়মিত খেলি। কাজেই সমস্যা হওয়ার কথা নয়।’

গত এশিয়া কাপের প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘এখন মনে হয় গত এশিয়া কাপের মত অবস্থা। সেখানেও এই আফগানদের হারিয়ে আমরা সেমির পথে অগ্রসর হয়েছিলাম (যদিও সেবার প্রথম ম্যাচে ১৩৬ রানের বড় ব্যবধানে হেরে পরের ম্যাচে ৩ রানে আফগানদের হারিয়েছিল বাংলাদেশ)। সেটাও একটা অনুপ্রেরণা।’

ভারতের বিপক্ষে আফগানদের ম্যাচের প্রসঙ্গ টেনে রোডস বলেন, ‘তারপরও আফগানরা ভারতকে গত ম্যাচে বেশ চাপে ফেলে দিয়েছিল। তবে আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

সেমিতে যেতে হলে বাকি থাকা তিনটি ম্যাচেই জয় খুব জরুরি। তা নিয়ে কি ভাবছেন কোচ স্টিভ রোডস? তিনি বলেন, ‘জানি, বাকি তিনটি ম্যাচেই জয় খুব দরকার। তবে আমরা তিন ম্যাচের চাপ একসাথে নিতে রাজি নেই। তাতে ভালোর চেয়ে খারাপ হতে পারে। সেটা ক্রিকেটারদের চন্য বাড়তি চাপ হয়ে দেখা দিতে পারে। তাই আমরা এখন একটি একটি করে ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। তারপরও ওভাবে না ভেবে, এক এক করে জিতে এগিয়ে যেতে চাই। তারপর দেখা যাবে, কি হয়!’

এআরবি/আইএইচএস/এমএস