আবারও ৮ গোল দিলো বায়ার্ন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:২৭ এএম, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

প্রতিপক্ষকে গুঁড়িয়ে দেয়ার নেশা যেন জেঁকে বসেছে জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখ খেলোয়াড়দের মধ্যে। নতুন মৌসুমের প্রথম ম্যাচেই তারা শালকে ০৪'র জালে গুনে গুনে দিয়েছে ৮টি গোল, বিপরীতে হজম করেনি একটিও।

গত মৌসুমের উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনালে স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনাকে ৮-২ গোলে হারিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিল বায়ার্ন। সেই ম্যাচের মাত্র এক মাস চার দিন পর আবারও ৮ গোল দিলো তারা।

জার্মান বুন্দেসলিগার ২০২০-২১ মৌসুমটি শুরুই হয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বায়ার্ন ও শালকের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে। নিজেদের ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষকে দুমড়ে মুচড়ে দিয়েছে হানস ফ্লিকের শিষ্যরা। ম্যাচের চতুর্থ মিনিট থেকে শুরু, ৮ গোলের উৎসবের শেষটি হয়েছে ৮১ মিনিটে গিয়ে।

বলা বাহুল্য, বুন্দেসলিগার ইতিহাসে কোনো আসরের উদ্বোধনী ম্যাচ তো বটেই, প্রথম সপ্তাহেই এত বড় ব্যবধানে জয়ের রেকর্ড নেই আর কোনো। এ নিয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলে টানা ৩১ ম্যাচ অপরাজিত রইলো তারা, জিতেছে ৩০টি, ড্র হয়েছে ১টি। শুধু জয়ের হিসেবে এটি তাদের টানা ২২তম জয়।

শালকেকে গোলের মালা উপহার দেয়া ম্যাচে হ্যাটট্রিক করেছেন সার্জি জিনাব্রি। এছাড়া একবার করে প্রতিপক্ষের জাল ছুঁইয়ে দিয়েছেন লিওন গোরেৎজকা, রবার্ট লেওয়ানডোস্কি, থমাস মুলার, লেরয় সানে এবং জামাল মুসাইয়ালা।

এলিয়েঞ্জ অ্যারেনায় ম্যাচের চতুর্থ মিনিটের সময় জিনাব্রির মাধ্যমে শুরু গোল উৎসবের। মিনিট ১৫ পরে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন গোরেৎজকা। এর ১২ মিনিট পর ডি-বক্সের মধ্যে ফাউলের শিকার হন লেওয়ানডোস্কি। সেখান থেকে পাওয়া পেনাল্টিতে ব্যবধান ৩-০ করেন গত মৌসুমের সর্বোচ্চ স্কোরার।

প্রথমার্ধের এই তিন গোলের পরেও বোঝা যায়নি যে দ্বিতীয়ার্ধে কী অপেক্ষা করছে শালকের সামনে। দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে দ্বিতীয় মিনিটের সময় এক হালি পূরণ করেন জিনাব্রি। আর নিজের হ্যাটট্রিক তুলে নিতে সময় নেন ম্যাচের ৫৯ মিনিট পর্যন্ত। ততক্ষণে স্কোরলাইন ৫-০।

এরপর ৬৯ মিনিটে থমাস মুলার, ৭১ মিনিটে লেরয় সানে এবং ৮১ মিনিটে জামাল মুসাইয়ালা গোল করে নিশ্চিত হয় শালকের বড় পরাজয়।

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]