জয়ে নতুন বছর বরণ চট্টগ্রাম আবাহনীর

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:০৩ পিএম, ০১ জানুয়ারি ২০২১

ইংরেজি নতুন বছর ২০২১ সালকে জয় দিয়ে বরণ করলো চট্টগ্রাম আবাহনী। শুক্রবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফেডারেশন কাপ ফুটবলের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে চট্টলার দলটি ২-০ গোলে হারিয়েছে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রকে। নির্ধারিত ৯০ মিনিটের খেলা গোলশূন্যভাবে শেষ হলেও অতিরিক্ত সময়ে দারুণ জয় তুলে নেয় মারুফুল হকের শিষ্যরা।

দুই দলের আড়ালে দেশের দুই অভিজ্ঞ কোচের লড়াইও ছিল এটি। চট্টগ্রাম আবাহনীর ডাগআউটে মারুফুল হক, রাসেলে সাইফুল বারী টিটু। একটা জমজমাট লড়াই হওয়ার প্রত্যাশা ছিল সবার।

কিন্তু দুই দলের লড়াইটা ছিল ম্যাড়মেড়ে। বিশেষ নির্ধারিত সময়ের ম্যাচে। অতিরিক্ত সময়ে দুই দলই গোলের জন্য মরিয়া হয়। মারুফুল হকের দল গোল আদায় করতে পারলেও পারেনি সাইফুল বারী টিটুর দল।

শেখ রাসেলের সমর্থকরা অবশ্য কাঠগড়ায় দাঁড় করাতেই পারে তাদের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড লোপেজ রদ্রিগেজকে। মাঠে অনুজ্জ্বল পারফরম্যান্সের সাথে ছিল পেনাল্টি মিসের মতো ব্যর্থতা।

৬০ মিনিটে পেনাল্টি পেয়েছিল শেখ রাসেল। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে কোনো দলের জন্য যা বিশাল সুযোগ। কিন্তু সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান রদ্রিগেজ। তার শট রুখে দেন চট্টগ্রাম আবাহনীর গোলরক্ষক নাঈম।

নির্ধারিত সময়ে গোলের ভালো সুযোগ এসেছিল চট্টগ্রাম আবাহনীরও। ৮৬ মিনিটে কাওসার রাব্বী বল গোলরক্ষকের গায়ে মেরে সুযোগ নষ্ট না করলে খেলা নির্ধারিত সময়েই শেষ হতে পারতো।

অতিরিক্ত সময়ের দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটেই গোল করে এগিয়ে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী। রাকিব হোসেন করেন এগিয়ে যাওয়া গোল। ১১৩ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করেন মান্নাফ রাব্বী।

ম্যাচ শেষে হওয়ার মুহূর্তে চট্টগ্রাম আবাহনীর কাওসার রাব্বীকে আঘাত করলে রাসেলের বদলি ফরোয়ার্ড তকলিস আহমেদকে লালকার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন রেফারি। ফেডারেশন কাপে এটাই প্রথম লাল কার্ড।

আরআই/এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]