‘মা বলেছেন, ভালো করে খেলবা’

রফিকুল ইসলাম
রফিকুল ইসলাম রফিকুল ইসলাম , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:৪৮ পিএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

সবার শেষে ক্যাম্পে ডাক পাওয়া নারায়ণগঞ্জের তরুণ ফুটবলার মো. রিদয় ২৩ জনের স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়ে চমকে দিয়েছেন সবাইকে। ১৯ বছর বয়সী আবাহনীর এই ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার এখন ফুটবল অঙ্গনে আলোচিত এক নাম।

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে জাতীয় ফুটবল দল এখন মালদ্বীপের পথে। সেই দলের কনিষ্ঠ সদস্য মো. রিদয় ঢাকা ছাড়ার আগে বলেছেন, সুযোগ পেলে নিজেকে উজার করে দিয়ে খেলতে চাই।

জাগো নিউজ: প্রাথমিক দলে ডাক পেয়েছিলেন হঠাৎ করে। চূড়ান্ত দলে জায়গা হয়েছে তা কখন জানতে পেরেছিলেন?

মো. রিদয়: সোমবার সন্ধ্যায় অনুশীলন শেষে ড্রেসিংরুমে কোচ ২৩ জনের নাম ঘোষণা করেন। নিজের নাম শুনে মনে হয়েছিল যেন স্বপ্ন দেখছি।

জাগো নিউজ: যখন কোচ আপনার নাম ঘোষণা করলেন ঠিক ওই মুহূর্তটা কেমন ছিল?

মো. রিদয়: আমি অনেক আনন্দিত ছিলাম স্বপ্নপূরণ হওয়ায়। তখন সবাই আমাকে অভিনন্দন জানান। তারপরই আমি মাকে ফোন দিয়ে বলি, ‘মা ২৩ জনে দলে টিকে গেছি দোয়া করিও।’

জাগো নিউজ: মা নিশ্চয়ই অনেক খুশি হয়েছেন?

মো. রিদয়: তিনি যে কী খুশি হয়েছেন তা বোঝাতে পারবো না। মা বলছিলেন, ‘এখন আরও ভালো করে খেলতে হবে।’

জাগো নিউজ: জাতীয় দলে ডাক পাবেন সেটা কি ভাবনার মধ্যে ছিল?

মো. রিদয়: আমি জাতীয় বিভিন্ন বয়সভিত্তিক দলে খেলেছি। ২০১৫ সালে সিলেটে সাফ অনূর্ধ্ব-১৬ চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলাম। সবসময়ই আশায় ছিলাম হয়তো একদিন জাতীয় দলে খেলবো।

জাগো নিউজ: ফুটবলার হওয়ার পেছনে কার অবদানকে বড় করে দেখছেন?

মো. রিদয়: অনেকেরই অবদান আছে। তবে একজনের কথা সবার আগে বলব, তিনি আমার নারায়ণগঞ্জের কোচ জাকির হোসেন। গোদনাইল হাজারিবাগের চিত্তরঞ্জন মাঠে তার কাছেই আমি ফুটবল খেলা শিখেছি।

জাগো নিউজ: আপনার লক্ষ্য কী?

মো. রিদয়: জাতীয় দলে ডাক পেয়েছি। ভালো খেলে টিকে থাকাই আমার লক্ষ্য।

জাগো নিউজ: ধন্যবাদ।

মো. রিদয়: আপনাকেও ধন্যবাদ।

আরআই/এসএএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]