অবিস্মরণীয় জয়ের পরদিন যেমন কাটলো মুশফিকদের


প্রকাশিত: ১২:২৫ এএম, ২১ মার্চ ২০১৭
অবিস্মরণীয় জয়ের পরদিন যেমন কাটলো মুশফিকদের

শততম টেস্টে ঐতিহাসিক জয়ের দেখা মিললো রাবনের দেশে। ভারত মহাসাগরের পাড় ঘেঁষা কলম্বোয়। তাতে কী প্রিয় জাতীয় দলের ওই অবিস্মরণীয় জয়ের আনন্দে নাচছে বঙ্গোপসাগর আর পদ্মা, মেঘনা, যমুনা ব্রহ্মপুত্রের দেশ।

Babuআনন্দ-উল্লাসের ঢেউ গিয়ে লেগেছে রাজধানী ঢাকা, বন্দর নগরী চট্টগ্রাম, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ। ধরা যাক ওই অবিস্মরণীয় সাফল্যটা ঢাকার শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে। আর টাইগাররা এখন সোনার গাঁ, র‌্যাডিসন কিংবা লা মেরিডয়ানে। তাহলে নিশ্চয়ই এখন তাদের ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করতে হোটেলে ভিড় জমাতেন হাজারো ক্রিকেটপ্রেমী।

অতি উৎসাহি ভক্ত-সমর্থকদের নিবৃত করতে কাল সন্ধ্যার পর থেকে নির্ঘাত কয়েক প্লাটুন পুলিশ-র‌্যাব মোতায়েন করতে হতো; কিন্তু কলম্বোয় তো আর ওসবের কিছুই নেই। কাল রাতে টাইগারদের টিম হোটেল ‘তাজ সমুদ্রে’ কোন উৎসব হয়নি।

শুধু শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার স্ব-পরিবারে টিম হোটেলে গিয়ে দলের ক্রিকেটারদের কেক খাইয়ে এসেছেন। আজ সকাল ১১টায় টিম হোটেলে গিয়েও কিছুই টের পাওয়া গেল না। এই হোটেলে থাকা বাংলাদেশ ক্রিকেট দলই যে আগের দিন বিকালে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে নিজেদের শততম টেস্টে অবিস্মরণীয় জয়ের স্বাদ পেয়েছে; সোমবার সকাল থেকে দুপুর অবধি তাজ সমুদ্রয় বসে থেকেও কিছুই বোঝা গেল না।

কি করে বোঝা যাবে? লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, মেহেদী হাসান মিরাজ ও কামরুল ইসলাম রাব্বি আজ সকালের ফ্লাইটেই দেশে ফেরত এসেছেন। আর তামিম জন্মদিন পালন করতে ছুটি নিয়ে মুম্বাই গেছেন স্ত্রী ও পুত্রের সাথে সময় কাটাতে।

সাকিবও সস্ত্রীক ঘুরতে বের হলেন। তবে শ্রীলঙ্কার ভেতরেই। মুশফিকের পত্নীও এসেছেন। ফলে ছুটি পেয়েছেন টেস্ট অধিনায়কও ছুটি পেয়েছেন। তিনি অবশ্য কোথাও যাননি। হোটেল রুমে শুয়ে বসে কাটিয়েছেন।

Vision

টেস্ট দলে থাকা বাকি ক্রিকেটারদেরও আজ ছিল ছুটি। কেউ তাই মাঠমুখো হননি কিংবা কোথাও যাননি। তবে ব্যতিক্রম ওয়ানডে স্কোয়াডে যোগ দিতে মাশরাফির নেতৃত্বে ঢাকা থেকে আসা বাকি ক্রিকেটাররা। তারা ঠিকই আজ দুপুরেই চলে গেলেন আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম সংলগ্ন প্র্যাকটিস কমপ্লেক্সে। সেখানে ঘাম ঝরিয়েছেন মাশরাফিরা। কোচিং স্টাফরাও সবাই ছিলেন মাশরাফিদের নিয়ে ব্যস্ত।

এআরবি/আইএইচএস/