ধলেশ্বরী সেতুতে জবির গাড়ি ভাঙচুর ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা

ফয়সাল খান
ফয়সাল খান , ভ্রমণ লেখক জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৭:৩৫ এএম, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

মাওয়াগামী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) শিক্ষার্থীদের একটি বাসে ভাঙচুর ও শিক্ষার্থীদের ওপর এক প্রাইভেটকার চালক ও প্রাইভেটকার মালিক হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

জবির এক শিক্ষার্থী জানান, ধলেশ্বরী দ্বিতীয় সেতুতে যানজটের কারণে তাদের বাসটি অপেক্ষমাণ ছিল। রাস্তার একপাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হলে পেছন থেকে গাড়ি চালিয়ে আসে এক নেশাগ্রস্ত চালক। ফলে যানজট ভয়াবহ অবস্থায় রূপ নেয়। এ সময় বাসে অবস্থানরত ছাত্ররা যানজট ছাড়াতে গিয়ে চালককে অনুরোধ করলে সে এক ছাত্রের ওপর চড়াও হয় এবং তাকে চড় ও কিলঘুষি মারে।

পরে কয়েকজন ছাত্র এগিয়ে গেলে সে তাদের স্থানীয় পরিচয় দিয়ে শাসায় ও অকথ্য ভাষায় ছাত্র ও বিশ্ববিদ্যালয়কে গালিগালাজ করে এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আঁড়িয়াল বাস পুড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়। এমনকি এই রোডে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলতে দেবে না বলে হুমকি দেয়।

ওই শিক্ষার্থী জানান, এ অবস্থায় ছাত্ররা ক্ষুব্ধ হয়ে পড়লে গাড়ির ওই মালিক রানা পালিয়ে যায়। ছাত্ররা তার গাড়ি ও চালককে আটক করে। পরবর্তীতে গাড়ির মালিক রানা ও তার গ্রুপ নিয়ে এসে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে তাদের ওপর হামলা চালায় এবং গাড়ি ভাঙচুর করে।

এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রীসহ ১৫ জন শিক্ষার্থীকে আহত করে এমনকি বাসের চালক ও হেলপারকে মারধর করে। খবর পেয়ে সিরাজদিখান উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সৈকত মাহমুদ এসে সমঝোতার চেষ্টা করে কিন্তু রানা তা না মেনে আবারও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায়। পরবর্তীতে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে তারা তাদের গাড়ি ও মোটরসাইকেল রেখে পালিয়ে যায়।

পুলিশ তৎক্ষণাৎ গাড়ির মালিক রানা ও তাদের গংদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ নেয়। সিরাজদিখান থানার উপ-পরিদর্শক মো. সোহেল রানা জানান, পুলিশ তৎক্ষণাৎ কাউকে গ্রেফতার করতে না পারলেও তাদের ফেলে যাওয়া গাড়ি ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করে থানায় নিয়ে যায়। এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেয়।

বিএ

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :