পুলিশ বাহিনীকে রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক রাজশাহী
প্রকাশিত: ০২:৫৪ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | আপডেট: ০৩:১৬ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
পুলিশ বাহিনীকে রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পুলিশ বাহিনীকে সবসময় আইনের রক্ষকের ভূমিকায় দেখতে চাই। দেশের প্রচলিত আইন, সততা আর নৈতিক মূল্যবোধই হবে পেশাগত দায়িত্ব পালনের পথপর্দশক।

রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে এ কথা বলেন তিনি। বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ৩৪তম শিক্ষানবিশ সহকারী পুলিশ সুপারদের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় পুলিশের ভূমিকার প্রশংসা করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, শান্তি, নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলার প্রতীক বাংলাদেশ পুলিশ। শুধু স্বাধীনতা সংগ্রামেই নয়, দেশের সঙ্কটময় মুহূর্তে পুলিশ সদস্যরা সাহসিকতার সঙ্গে কাজ করেছেন। পুলিশের এমন আন্তরিকতা, কর্মদক্ষতা ও পেশাদারিত্ব দেশবাসীর কাছে প্রশংসিত।

পুলিশের উন্নয়নে সরকারের নেয়া বিভিন্ন উদ্যোগের বিবরণ তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিকে সেন্টার অফ এক্সিলেন্স হিসেবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করেন।

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতির কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মোকাবেলায় পুলিশকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলতে সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। পুলিশকে আরও উন্নত, পেশাদার ও জনবান্ধব করার প্রক্রিয়া চলছে।

jagonews24

এর আগে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর বিশেষ হেলিকপ্টারযোগে সকাল সোয়া ১০টার দিকে সারদা পুলিশ একাডেমিতে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। পরে শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ পরিদর্শন ও অভিবাদন গ্রহণ করেন। এছাড়া মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণকারী ২৬ জন নারীসহ ১৪১ জন নবীন সহকারী পুলিশ সুপারদের মধ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় কয়েকজনকে পদক প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি, তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহম্মেদ পলক, রাজশাহীর সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক, বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির অধ্যক্ষ মোহাম্মদ নাজিবুর রহমান প্রমুখ।

এদিকে বেলা ৩টার দিকে জেলার পবা উপজেলার হরিয়ানে রাজশাহী চিনিকল মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। জনসভায় রাজশাহী অঞ্চলের জনগণের জন্য তার সরকারের পরিকল্পনার কথা জানাবেন শেখ হাসিনা।

ফেরদৌস সিদ্দিকী/এফএ/আরআইপি